Monday, 22 July, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৭ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




গোলাপগঞ্জ শিক্ষা অফিসার আব্দুল হামিদকে সহকারী শিক্ষক সমিতির বিদায় সংবর্ধনা

বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম।। বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় গোলাপগঞ্জ উপজেলার সহকারী শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো: আব্দুল হামিদকে সরকারের বদলীজনিত কারণে বিদায় সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল ৫ ঘটিকায় সহকারী শিক্ষক জামাল হোসেনের সভাপতিত্বে শেখ নুরুল ইসলামের সঞ্চালনায় পৌরসভা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর মফিজ উদ্দিন ভূইয়া, বিশেষ অতিথি ছিলেন সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার জনাব পারভেজ তালুকদার, সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার খায়রুজ্জামান, বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো ছিলেন সহকারী শিক্ষক নেতা হানিফ আহমদ, প্রধান শিক্ষক তাজ উদ্দিন, প্রধান শিক্ষক আতিকুর রহমান, প্রধান শিক্ষক মমতাজ বেগম, প্রধান শিক্ষক হোসনে আরা কুসুম, প্রধান শিক্ষক অনন্ত কুমার শীল,, প্রধান শিক্ষক আব্দুল গফফার, প্রধান শিক্ষক নুরুল হুদা, স্কাউট ট্রেইনার হানিফ আহমদ, সহকারী শিক্ষক নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ফয়সল আহমদ চৌঃ, বাহার উদ্দিন, হুমায়ুন কবির, নাসির উদ্দিন, তাজুল ইসলাম, আদরী দে, মাহবুবুর রহমান শিবলু, আং কুদ্দুস, শরীফ উদ্দিন, সাহিদুল ইসলাম খান, মাকসুদ উল করিম,মিজানুর রহমান।

সহকারী শিক্ষকবৃন্দের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন নার্গিস চৌধুরী, শাহনাজ বেগম শেলি, তোফা ফজল, সমিরন পাল, নার্গিস ফাতেমা, সহিদুল ইসলাম, জসিম উদ্দিন, শাম্মি বেগম চৌ, মোহাম্মাদ হোসেনে পলাশ, ছালিক আহমদ,সফিউল ইসলাম, বিধান দাস,কায়েস মিয়া,নাজমা বেগম, জাকির হোসেন, নার্গিস বেগম, শর্মিলা দাস, ইসতেখার জোয়েল, জাবের আহমদ, নাসির উদ্দিন, মতিউর রহমান, শেখ জসিম উদ্দিন, মিজানুর রহমান, কলিম উদ্দিন, শুভ্র চৌধুরী, বিশ্ব জ্যোতি, ফজলুল হক, আব্দুল আজিজ, শফিউল ইসলাম, অলক মালাকার, মুহিবুর রহমান, মামুন আহমদ, আমিনুর রশীদ, আজিজুর রহমান, সুলায়মান খান, ফারহানা সিদ্দিকা কানন, নুজহা আফরিন চৌঃ নয়ন তালুকদার, তামান্না খানম, তাহমিনা বেগম, জাহেদ আহমদ, ফারহানা হক, দিপক দাস, জ্যোতিময় দাশ প্রমুখ।

এছাড়া বক্তব্য বক্তারা বলেন শিক্ষা অফিসার আব্দুল হামিদ স্যার ছিলেন একজন আলোর ফেরীওয়ালা ও সৃজনশীল প্রতীভার অধিকারী। ২০১৮ সালের ২০ ডিসেম্বর তিনি উপজেলা শিক্ষা অফিসারের দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে উপজেলার ১৮০টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার মানন্নোয়ন, প্রতিটি বিদ্যালয়কে দৃষ্টিনন্দন করা,। শিক্ষকদের পেশাগত উন্নয়নে তিনি সৃজনশীল চিন্তা করতেন। তিনি শিক্ষকদের হয়রানি না শিক্ষকসুলভ আচরণ করতেন। কোমলমতি শিশুদের কীভাবে বিদ্যালয়ে লেখাপড়ার মান বৃদ্ধি করা যায় এজন্য সর্বদা তিনি শিক্ষকদের পরামর্শ দিতেন।

তিনি উপজেলা সদর থেকে শুরু করে প্রত্যন্ত অঞ্চলের প্রতিটি বিদ্যালয় পরিদর্শন করেছেন। পরিদর্শনের মাধ্যমে তিনি বিদ্যালয় ও শিক্ষকদের নানা সমস্যার সমাধানে সহায়তা করতেন। সবশেষে বক্তারা সুন্দর অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য সহকারী শিক্ষক সমিতি গোলাপগঞ্জ শাখার নেতৃবৃন্দের প্রশংসা করেন।

 

Developed by :