Monday, 17 June, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৩ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




কুলাউড়া থেকে অপহৃত শিশু শ্রীমঙ্গলে উদ্ধার

কুলাউড়া: মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলা থেকে অপহরণের পাঁচ ঘন্টার মাথায় শ্রীমঙ্গলের সদর ইউনিয়নের পরিত্যক্ত একটি বাড়ি থেকে মাহাদী অমি নামে এক শিশুকে উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় তিন অপহরণকারীকেও আটক করা হয়।

শুক্রবার (৩১ মে) রাত সাড়ে ৯ টার দিকে কুলাউড়া থানা মসজিদে নামাজ শেষে বের হওয়ার পর অমি নামে শিশুকে অপহরণ করে নিয়ে যায় অপহরণকারী।

এরপর পরিবারের কাছে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে অপহরণকারীরা। খবর পেয়ে অভিযানে নামে পুলিশ। শনিবার (১ জুন) ভোর সাড়ে ৪ টায় শ্রীমঙ্গল উপজেলার ইসবপুর এলাকায় হাওড়পাড়ের একটি পরিত্যাক্ত বাড়ি থেকে তাকে উদ্ধার মাহাদীকে উদ্ধার করে পুলিশ।

আটককৃতরা হলেন, কুলাউড়া উপজেলার জয়পাশা এলাকার শাহজান মিয়ার ছেলে হৃদয় আহমদ (২৭), সিলেট জেলার বিয়ানীবাজার উপজেলার মোল্লাপুর এলাকার নিজাম আহমদের ছেলে রেদোয়ান আহমদ (২৭) ও কুলাউড়া উপজেলার দানাপুর এলাকার তবারক হোসেনের ছেলে কামরুল ইসলাম (১৭)। এ ঘটনায় কুলাউড়া উপজেলার জয়পাশা এলাকার ইনতিয়াজ মিয়ার ছেল খায়রুল ইসলাম (২৫) পলাতক রয়েছে।

মৌলভীবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রাশেদুল ইসলামের নেতৃত্বে ও কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান, পরিদর্শক (তদন্ত) সঞ্জয় চক্রবর্তী এ অভিযান পরিচালনা করে শিশুটিকে উদ্ধার করেন।

পুলিশ জানায়, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে অপহরণকারীদের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশের সহায়তায় উপজেলার ইসবপুর এলাকায় একটি পরিত্যাক্ত বাড়িতে অভিযান চালায় পুলিশ। ঝড়-বৃষ্টি উপক্ষো করে অপহৃত শিশুটিকে সে বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়।

মাহাদী উপজেলার রাউৎগাঁও ইউনিয়নের মো. আব্দুল হাসিমের ছেলে। বর্তমানে তারা পৌর শহরের মাগুরায় বসবাস করছেন। মাহাদী ‘অঙ্কর কিন্ডার গার্ডেন’র ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্র।

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রাশেদুল ইসলাম বলেন, শিশুটি অপহরণ ঘটনায় রাতেই তার পরিবার পুলিশকে অভিযোগ করে। সাথে সাথে আমরা অভিযানে নামি। কিন্তু বিপত্তি বাধে ঝড়-বৃষ্টিতে। কিন্তু ঝড়-বৃষ্টির জন্য অপেক্ষা করলে মুক্তিপণ না পেয়ে অপহরণকারীরা শিশুটির ক্ষতি করে ফেলতে পারে। তাই হাওরপাড়ের ঝড় আর বৃষ্টির মধ্যে আমরা একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে অভিযান চালিয়ে অমি কে উদ্ধার করতে সক্ষম হই। এই সফল অভিযানে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ আমাদের সহায়তা করেছে।

তিনি আরো জানান, অপহরণের সাথে জড়িত তিন ব্যক্তিকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তাদের সাথের আরেকজন অপহরণকারী খায়রুল ইসলাম ইসলামকে আটকের চেষ্টা করছে পুলিশ। তাদের নামে থানায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন।

 

Developed by :