Monday, 26 September, 2022 খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |




ওবায়দুল কাদেরের জন্য মাউন্ট এলিজাবেথেও নেতাকর্মীর ভিড়

বিয়ানীবাজারবার্তা ডেস্ক।।

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে থাকা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ৩০০৮ নম্বর ইন্টেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে।

 



সোমবার (৪ মার্চ) বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টা ৪০ মিনিটে সিঙ্গাপুরের অ্যারোস্পেস রোডের সেলেটর বিমানবন্দরে অবতরণ করে ওবায়দুল কাদেরকে বহনকারী এয়ার অ্যাম্বুলেন্সটি। সেখান থেকে সরাসরি মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে নেয়া হয় তাকে।

এদিকে ওবায়দুল কাদের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে নেওয়ার খবরে হাসপাতাল চত্বরে ভিড় করেন স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ শুভানুধ্যায়ীরা।

 



সিঙ্গাপুরের বাংলার কণ্ঠ’র সম্পাদক মহসিন মালহার জানান, গুরুতর অসুস্থ ওবায়দুল কাদের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে পৌঁছেছেন- এমন খবর শোনার সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতাল চত্বরে ভিড় করেন শতাধিক বাংলাদেশি। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ভিড় সামলাতে এ সময় হিমশিম খেতে হয়।

 



এর আগে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) করোনারি ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (সিআইসিইউ) চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় ওবায়দুল কাদেরের শরীরে সংক্রমণরোধে সিসিইউতে প্রবেশ না করতে নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 



তার নির্দেশনা অনুসারে বিএসএমএমইউর করোনারি কেয়ার ইউনিট (সিসিইউ), ইনটেনসিভ করোনারি কেয়ার ইউনিট (আইসিসিইউ) হাই-ডিপেনডেন্সি ইউনিট (এইচডিইউ) ও অন্যান্য অস্ত্রোপচার কক্ষে প্রবেশের দরজার ওপর একটি নোটিশ টানিয়ে দেয়া হয়।

 



সেখানে লেখা হয়, ‘অনারেবল প্রাইম মিনিস্টার অর্ডার্ড নট টু এন্টার ইন সিসিইউ, প্লিজ কো-অপারেট আস’। অর্থাৎ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সিসিইউতে প্রবেশ না করতে নির্দেশ দিয়েছেন। এজন্য অনুগ্রহপূর্বক আমাদের সহযোগিতা করুন।

 



প্রসঙ্গত, রোববার (৩ মার্চ) সকালে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করানো হয় ওবায়দুল কাদেরকে।

 



মন্ত্রীর জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু নাছের বলেন, ফজরের নামাজ শেষে হঠাৎ করেই শ্বাসপ্রশ্বাসে সমস্যা হচ্ছিল তার। সঙ্গে সঙ্গে তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

 



চিকিৎসকরা জানান, ওবায়দুল কাদেরের হার্টে তিনটি ব্লক ধরা পড়েছে। এর মধ্যে একটিতে রিং পরানো হয়।

ওবায়দুল কাদেরকে চিকিৎসা দিতে ওইদিন রাতেই ঢাকায় পৌঁছে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের চার সদস্যের প্রতিনিধি দল। ওই দলে একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, একজন সহকারী ও দুজন নার্স ছিলেন।

 



পরদিন সোমবার (৪ মার্চ) দুপুরে ঢাকায় পৌঁছান উপমহাদেশের প্রখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী শেঠি। বিএসএমএমইউতে পৌঁছেই সেতুমন্ত্রীর শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করেন তিনি। পরে তিনিসহ মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে সিঙ্গাপুরে নেওয়ার পরামর্শ দেন।

 



সে পরামর্শ অনুযায়ী সেতুমন্ত্রীকে সিঙ্গাপুর নেওয়া হলো।

 






















 

Developed by :