Thursday, 20 January, 2022 খ্রীষ্টাব্দ | ৭ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |




বিয়ানীবাজারে ৬০ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ ৫০৫ জনের মনোনয়ন জমা

নাহিদুর রহমান: বিয়ানীবাজারে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত নারী সদস্য প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) দিনব্যাপী প্রার্থীরা তাদের কর্মী সমর্থকদের নিয়ে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা এবং বাদ্যযন্ত্র সহকারে পৌরশহরে আসেন। এ সময় উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণ লোকে লোকারণ্য হয়ে উঠলেও কারো মুখে মাস্ক দেখা যায়নি। বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া মনোনয়ন জমা দিতে প্রার্থীসহ সীমিত সংখ্যক লোক রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে প্রবেশ করতে দেখা গেছে।

ইলেকশন কমিশন নির্ধারিত জমাদানের শেষ দিন গতকাল পর্যন্ত ১০ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৬০ জন, সাধারণ সদস্য ৩৬৬ ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৭৯ জনসহ ৩ পদে মোট ৫০৫ জন প্রার্থী সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। উপজেলা নির্বাচন অফিসার সৈয়দ কামাল হোসেন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। প্রাপ্ত তথ্যমতে, চেয়ারম্যান পদে একাধিক ইউনিয়নে সর্বনি¤œ ৪জন এবং কুড়ারবাজার ইউনিয়নে সর্বোচ্চ ১১ জন প্রার্থী রয়েছেন।

আওয়ামী লীগের তৃণমূল ভোটে নির্বাচিত তালিকা থেকে দুবাগ, তিলপাড়া ও মোল্লাপুর ইউনিয়নে প্রথমজন বাদ দিয়ে নতুন মুখ এসেছে। এরমধ্যে আশরাফুল ইসলাম ও পলাশ আফজল দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে নিলেও তিলপাড়ায় বিবেকানন্দ দাশ বিবেক বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।

সূত্রমতে, বিয়ানীবাজারে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সবক’টি ইউনিয়নে এবং জাতীয় পার্টি, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ও ইসলামি শাসনতন্ত্র আন্দোলনে কোন কোন ইউনিয়নে দলীয় প্রতীকে অংশ নিচ্ছে। কিন্তু বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) ও জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ এবার দলীয় প্রতীকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছে না। তবে, স্বতন্ত্রের মোড়কে চেয়ারম্যান পদে বিএনপি’র ৯ জন এবং জামায়াতে ইসলামীর ৩ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এছাড়া প্রত্যেক ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন। একই সাথে জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের ৩ জন এবং ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের ২জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

এদিকে, আজ আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীরা সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মো. নাসির উদ্দিন খানকে সাথে নিয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কবির উদ্দিন আহমদ, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট মোহাম্মদ আব্বাছ উদ্দিন, কার্যকরি সদস্য হাজি আব্দুল হাসিব মনিয়া, বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট আতাউর রহমান খান, সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান মাকসুদুল ইসলাম আউয়াল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুস শুকুর ও আবুল কাশেম পল্লব, সাংগঠনিক সম্পাদক জামাল হোসেন ও মাসুদ হোসেন খান, কার্যকরি কমিটির সদস্য বিশিষ্ট সাংবাদিক ছাদেক আহমদ আজাদ, কাওছার আহমদ, ছাত্রনেতা কেএইচ সুমনসহ দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রমতে, আসন্ন ইউপি নির্বাচনে আলীনগর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৪জন প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এরমধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের আহবাবুর রহমান শিশু, স্বতন্ত্র প্রার্থী ও পরপর দু’বারের নির্বাচিত বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা মামুনুর রশীদ মামুন, স্বতন্ত্র প্রার্থী সাদেক আহমদ চৌধুরী ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের দলীয় প্রার্থী মাওলানা হোসাইন আহমদ।

২নং চারখাই ইউনিয়নে ৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী হলেন, আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের বর্তমান চেয়ারম্যান মাহমুদ আলী, স্বতন্ত্র প্রার্থী হোসেন মুরাদ চৌধুরী ও লেইছুর রহমান, ইসলামী আন্দোলনের হাত পাখা প্রতীকের জাকির হোসেন।

৩নং দুবাগ ইউনিয়নে ৫ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে, আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ কমর উদ্দিন চৌধুরী, জালাল আহমদ, আলহাজ্ব মাওলানা মোস্তাক আহমদ চৌধুরী ও মোহাম্মদ আফজাল হোসেন।

৪নং শেওলা ইউনিয়নে ৫জন প্রার্থীর মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের বর্তমান চেয়ারম্যান জহুর উদ্দিন, জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকের ফয়জুর রহমান, জমিয়তে উলামায়ে বাংলাদেশের এনাম উদ্দিন, স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা হাজী মোহাম্মদ আক্তার হোসেন খান জাহেদ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ মাহবুব হোসেন ইকবাল।

৫নং কুড়ারবাজার ইউনিয়নে সর্বোচ্চ ১১জন চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এরমধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের বাহার উদ্দিন, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী তুতিউর রহমান তোতা, স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা এ এফ এম আবু তাহের, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ নজমুল হক, মোঃ জাকারিয়া আহমদ, ইফতেখার আহমদ টিপু, আসলাম খান, মোঃ আব্দুল মুমিত, মুশফিকুর রহমান, আয়নুল হক ও সাইদুর রহমান।

৭নং মাথিউরা ইউনিয়নে ৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের মো. আমান উদ্দিন, স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা কছির আলী, মোঃ ময়নুল ইসলাম বাবুল, মোঃ আব্দুল বাছিত ও মোঃ জিয়াউর রহমান।

৮নং তিলপাড়া ইউনিয়নে ৮জন চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছেন। এরমধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের এমাদ উদ্দিন, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বিবেকানন্দ দাস বিবেক ও জামিল আহমদ, বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা মাহবুবুর রহমান, বিএনপি নেতা সাইফুল ইসলাম, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ রেজাউল করিম শামীম, বেলায়েত হোসেন ও কনাই মিয়া।

৯নং মোল্লাপুর ইউনিয়নে ৫জন চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এরমধ্যে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের শামীম আহমদ, বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা মোঃ আব্দুল মান্নান, স্বতন্ত্র প্রার্থী সেলিম আহমদ, আব্দুল করিম ও মোঃ জিয়াউর রহমান।

১০নং মুড়িয়া ইউনিয়নে ৭জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের হুমায়ুন কবির, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী সাব্বির উদ্দিন, জামায়াতে ইসলামী নেতা ফরিদ আহমদ (ফরিদ আল মামুন), স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ নুরুল হক, অহিদুর রেজা মাছুম, রুহুল আমিন, হুমায়ুন কবির শাহিদ।

১১নং লাউতা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৬ জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এরমধ্যে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের সাবেক চারবারের চেয়ারম্যান এম এ জলিল, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান গৌছ উদ্দিন, বাংলাদেশ ইসলামী আন্দোলনের রেজাউল করিম সাজু, জামায়াতে ইসলামী নেতা দেলোয়ার হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী সাদেক হোসেন এপলু ও আবুল কালাম আজাদ।

 




 

Developed by :