Wednesday, 22 September, 2021 খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |




চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে গেলেন কাদের মির্জা

বার্তা ডেস্ক: চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্য দেশ ছেড়েছেন নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) ভোরে তিনি কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন।

সফরসঙ্গী হিসেবে রয়েছেন তার দুই ছেলে নিউইয়র্ক সিটি আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব আলী ও নোয়াখালী জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি মির্জা মাশরুর কাদের তাশিক।

এর আগে গত মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) সন্ধ্যা ৭টায় রাজধানীর ধানমন্ডির প্রান্তিক ভবনে বড় বড়ভাই আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করেন কাদের মির্জা।

নিজের ফেসবুকে দেয়া এক পোস্টে এসব তথ্য জানিয়েছেন কাদের মির্জা নিজেই। সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করা একটি ছবিতে দেখা গেছে, ভাই ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে তার বাসার অভ্যর্থনা কক্ষে অবস্থান করছেন তিনি। দুজনেই সামাজিক দূরত্ব মেনে বসে আছেন। দুজনের মুখেই মাস্ক।

পরে কাদের মির্জা ফেসবুকে লিখেছেন, ‘চিকিৎসার জন্য আমেরিকার উদ্দেশে রওনা হওয়ার আগে আমার শ্রদ্ধেয় বড় ভাই জননেতা ওবায়দুল কাদের এমপির সঙ্গে সাক্ষাৎ করে দোয়া নিই। এ সময় কোম্পানীগঞ্জের বিরাজমান রাজনৈতিক অস্থিরতা স্থিতিশীল করার লক্ষ্যে আলোচনা হয়। সকলে ধৈর্যবান হয়ে শান্তির লক্ষ্যে কাজ করুন। শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য যে যার অবস্থান থেকে সহযোগিতা করুন। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।’

jagonews24

আবদুল কাদের মির্জার যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার মুহূর্তের কয়েকটি ছবি ফেসবুকে প্রকাশ করেছেন তার ঘনিষ্ঠ অনুসারী ও আওয়ামী লীগ নেতা আইয়ুব আলী।

বুধবার রাতে তিনি বলেছিলেন, কাদের মির্জা চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্র যাচ্ছেন। আগামী ১২ আগস্ট কাদের মির্জার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

আইয়ুব আলী আরও জানান, যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) বিকাল ৩টা ১৫ মিনিটে জন এফ কেনিডি (এফকে) বিমানবন্দরে পৌঁছাবেন। শুক্রবার (৩০ জুলাই) সকালে যুক্তরাষ্ট্রে নাক কান ও গলা বিভাগের ডাক্তার দেখাবেন কাদের মির্জা।

এর আগে গত ১০ জুন ভোরের ফ্লাইটে আবদুল কাদের মির্জার যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আগের দিন সন্ধ্যায় তিনি হঠাৎ মত বদলান। তখন দাবি করেন, তার অনুসারীদের হত্যার পরিকল্পনা করেছে প্রতিপক্ষ। তাই তিনি অনুসারীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে যুক্তরাষ্ট্র যাওয়ার সিদ্ধান্ত বাতিল করেছেন।

 

Developed by :