Saturday, 10 April, 2021 খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ চৈত্র ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |




নারায়ণগঞ্জ মহানগর আ. লীগ নেতার বিরুদ্ধে মেয়র আইভির মামলা

মেয়র ডা. সেলিনা হায়ৎ আইভী, প্রদীপ দাস ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা।

বার্তা ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহাসহ দুজনের বিরুদ্ধে তথ্য প্রযুক্তি আইনে সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করেছেন মেয়র ডা. সেলিনা হায়ৎ আইভী। আজ সোমবার বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আসসামছ জগলুল হোসেনের আদালতে তিনি মামলাটি করেন।

বিচারক বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ শেষে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি সিআইডি পুলিশকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন। মামলার অপর আসামি হলেন, হিন্দু লাইভস মেটার ইউটিউব চ্যানেলের মালিক প্রদীপ দাস।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের এ মামলায় বলা হয়, গত ২৩ নভেম্বর প্রদীপ দাসের ইউটিউব চ্যানেল হিন্দু লাইভস ম্যাটার’এ একটি ভিডিও প্রচার করা হয়। ‘নারায়ণগঞ্জের মেয়র আইভীকে খোকন সাহা : হাজার কোটি টাকা মূল্যের হিন্দুদের দেবোত্তর সম্পত্তি ফিরিয়ে দিন’, ‘এক হাজার কোটি টাকা মূল্যের হিন্দুদের দেবোত্তর সম্পত্তি মেয়র আইভীর দখলে’। ‘মন্দিরের সেবায়েত গুম’। ‘আতঙ্কে হিন্দুরা’- শিরোনামে ভিডিও প্রচার করা হয়। পরবর্তীতে গত ১ ডিসেম্বর পুনরায় আরও একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়।

১৪ মিনিট ৪৮ সেকেন্ড দৈর্ঘের ওই ভিডিওতে আসামি খোকন সাহা তার বক্তব্যে বলেন, ‘হিন্দুদের দেবোত্তর সম্পত্তি মেয়ের মহোদয়ের দাদা মাহাতাব উদ্দিনসহ পরিবার বর্গ অবৈধভাবে দখল করে আছেন। মাননীয় নেত্রী আপনি আমাদের হিন্দু সম্প্রদায়ের অভিভাবক। যারা আওয়ামী লীগ করে তাদের আপনি নমিনেশন দেবেন না এবং তাদের আপনি আনবেন না। মেয়র আইভী হিন্দুদের ভোট নেয়। কালীপূজা করে সিঁদুর দিয়ে কালীমাকে প্রণাম করে। আমি হিন্দু সম্প্রদায়কে একত্র করার চেষ্টা করছি এবং বলছি, যারা দেবত্তর সম্পত্তি গ্রাস করে তাদেরকে আপনারা ভোট দিবেন না। যারা দেবত্তর সম্পত্তি খায় তাদেরকে যেন জননেত্রী শেখ হাসিনা নোমিনেশন না দেয়। এবং হিন্দু সম্প্রদায়কে বলছি, যারা দেবোত্তর সম্পত্তি খায় তাদেরকে আপনারা ভোট দেবেন না।’

মামলায় বলা হয়, আসামি প্রদীপ দাস ও খোকন শাহা পরস্পর যোগসাজসে বাদিনী সম্পর্কে প্রকাশিত উক্ত বক্তব্য মিথ্যা ও বানোয়াট এবং মানহানিকর। এতে রাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিকভাবে মেয়রের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে। খোকন সাহা রাজনৈতিক ফায়দা লাভের জন্য এবং আগামী মেয়র নির্বাচনে যেন আইভি রহমান দল থেকে নমিনেশন না পান; সেই উদ্দেশ্যে এসব মানহানিকর বক্তব্য প্রচার করেছেন।

 

Developed by :