Tuesday, 1 December, 2020 খ্রীষ্টাব্দ | ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |




বিনা ভোটেই নির্বাচিত হচ্ছে মাহিউদ্দিন সেলিমসহ অন্যরা

সিলেট: সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচনের জন্য আর ভোটগ্রহণের প্রেয়াজন পড়ছে না।

বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) এই নির্বাচনের মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিনে মাহি উদ্দিন সেলিমকে সাধারণ সম্পাদক করে একটি মাত্র প্যানেল মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছে।

ফলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায়ই নির্বাচিত হতে যাচ্ছে এই প্যনেল। এতে মাহিউদ্দিন সেলিমের আবারও সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক হওয়া অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে গেছে।

বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) বিকেল ৫টা পর্যন্ত নির্ধারিত সময়ে সকলপদে একক প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বাছাইয়ে মনোনয়নপত্র বৈধ হলে দাখিলকৃত সব প্রার্থীরাই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হবেন।

বৃহস্পতিবার সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন কমিশনার মো. আসলাম উদ্দিন এই প্যানেলর মনোয়নপত্র গ্রহণ করেন। প্যানলে সহ সভপতি পদে প্রার্থী হয়েছেন হাজী এম এ ছাত্তার, আফজাল রশীদ চৌধুরী, মঈন উদ্দিন আহমদ ও ফেরদৌস চৌধুরী রুহেল। সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী মাহিউদ্দিন আহমদ সেলিম। অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক পদে গোলাম জাবির চৌধুরী জাবু এবং যুগ্ম সম্পাদক পদে আব্দুল মালিক রাজা ও হানিফ আলম চৌধুরী প্রার্থী হয়েছেন। আর কোষাধ্যক্ষ পদে আছেন সাহিদ আহমদ জুয়েল। এছাড়া নির্বাহী সদস্য প্রার্থী হয়েছেন শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, জুনেদ আহমদ, শমশের জামাল, আব্দুর রকিব, রেজওয়ান আহমদ, দীপাল কুমার সিংহ, সৈয়দ তাকরিমুল হাদী ক্বাবী, আবু আনাম মিরাজ জাকির, সমর চৌধুরী, নূরে আলম খোকন, মাহমুদ হোসেন শাহীন, হাজী মিলাদ আহমদ, ফাহিম মুর্শেদ চৌধুরী বাবু, রাজ্জাক আহমদ, মোস্তাক আহমদ পলাশ, মারিয়ান চৌধুরী মাম্মী ও হাসিনা মহিউদ্দিন।

তফসিল অনুযায়ী ২১ নভেম্বর সকাল ১০টায় মনোনয়নপত্র বাছাই। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৪ নভেম্বর বিকেল ৫টা। চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ ২৫ নভেম্বর বিকেল ৫টা। ভোট গ্রহণের তারিখ ৫ ডিসেম্বর।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন কমিশনার মো. আসলাম উদ্দিন বলেন, মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষদিনে একটি প্যানেল মনোনয়ন জমা দিয়েছে। এখন এই প্যাণেলের প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাছাই-বাছাই করা হবে।

সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার এডহক কমিটির সাধারণ সম্পাদক বিজিত চৌধুরী জানান, জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচনের জন্য নির্ধারিত সময়ে সকল পদেই একক প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় বাছাইয়ে বৈধ হলে তারা নির্বাচিত হবেন।

এরআগে সর্বশেষ ২০১০ সালের ডিসেম্বরে সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন হয়েছিল।

জানা গেছে, উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী ডিসেম্বর মাসের শুরুতেই সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন করার কথা।

প্রসঙ্গত, সর্বশেষ নির্বাচিত পরিষদের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে ২০১৫ সালের এপ্রিলে সিলেটের জেলা প্রশাসককে আহ্বায়ক ও মাহিউদ্দিন সেলিমকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭ সদস্যের আহবায়ক কমিটি দিয়েছিল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ। কমিটির অন্যান্য সদস্য ছিলেন, সহ-সভাপতি সিলেটের পুলিশ সুপার, কোষাধ্যক্ষ মো. সিরাজ উদ্দিন, সদস্য অ্যাডভোকেট নিজাম উদ্দিন, বিজিত চৌধুরী ও নাজনীন হোসেন।

৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচনের জন্য করা ছিলো এই অ্যাডহক কমিটির। পরবর্তীতে বিভিন্ন মামলা থাকায় দফায় দফায় কমিটির মেয়াদ বাড়ানো হয়। নির্বাচিত পরিষদের চেয়েও বেশি সময় প্রায় সাড়ে ৫ বছর সময় দায়িত্বে পালন করে এই কমিটি।

 

Developed by :