Monday, 25 May, 2020 খ্রীষ্টাব্দ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |




গাঙ্গুলির ওপর রেগে গেলেন মমতা

স্পোর্টস ডেস্ক: বৃষ্টির কারণে ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা মধ্যকার তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডের একটি বলও মাঠে গড়ায়নি। এর পরপরই করোনাভাইরাস আতঙ্ক ভর করে সারা ভারতে। ফলে প্রাথমিকভাবে সিদ্ধান্ত নেয়া হয় সিরিজের বাকি দুই ম্যাচ হবে দর্শকশূন্য গ্যালারিতে রুদ্ধদ্বার স্টেডিয়ামে।

কিন্তু সেই সিদ্ধান্ত ২৪ ঘণ্টাও টেকেনি। নতুন করে জানানো হয়, স্থগিত করা হয়েছে সিরিজের শেষ দুই ম্যাচ। দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ড মিলে ঠিক করবে কবে হবে এ দুই ম্যাচ। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের এ সিদ্ধান্ত সর্বজনগৃহীত হয়। স্বাভাবিকভাবেই নেন সবাই।

কিন্তু এত সহজেই যেন এটি মানতে পারছেন না পশ্চিম বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তাকে বা কলকাতার প্রশাসনকে না জানিয়েই এমন সিদ্ধান্ত নেয়ায় বিসিসিআই প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলির ওপর চটেছেন মমতা। এ সিরিজের শেষ ম্যাচটি হওয়ার কথা ছিল কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে, আগামী ১৮ তারিখে।

করোনা আতঙ্কে সিরিজ বাতিল করা হয়েছে, ফলে কলকাতায় খেলাটি হবে না। তবে খেলা না হওয়া নিয়ে কোনো সমস্যা বা মাথাব্যথা নেই মমতার। তিনি রেগেছেন মূলত পুরোপুরি এককভাবে এ সিদ্ধান্ত নেয়ার কারণে। তার মতে, অন্তত কলকাতার পুলিশকে হলেও জানানোর দরকার ছিল এ ব্যাপারে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে মমতা বলেন, ‘সৌরভের সবকিছুই ঠিক আছে। কিন্তু তাদের তো উচিৎ ছিলো আমাদেরও এ ব্যাপারে জানানো। এটুকুই তো, এর বেশি কিছু না। যেহেতু একটা ম্যাচ কলকাতায়ও ছিলো। তাই অন্তত কলকাতা পুলিশকে তো এ ব্যাপারে অবহিত করা দরকার ছিলো।’

এসময় মুখে নম্র থাকার কথা বললেও, মমতার মন্তব্যে স্পষ্ট বোঝা গেছে বেশ ক্ষেপেছেন তিনি। আরও বলেন, ‘আমি যথাযথ সম্মানের সঙ্গেই বলছি। কেনো প্রদেশের চিফ সেক্রেটারি, হোম সেক্রেটারি, পুলিশ কমিশনার কিংবা সরকারের কাউকে এ ব্যাপারে জানানো হলো না? কোনো সিদ্ধান্ত নেয়ার পর আমাদের জানানো আবার কেমন কথা? আমরা বলছি না ম্যাচ বন্ধ করতে বা না করতে। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে আপনি কী করতেন?’

উল্লেখ্য, এখনও পর্যন্ত ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১১৪ জন। এর মধ্যে মারা গিয়েছেন ২ জন। সারাবিশ্বে এখনও পর্যন্ত ১ লাখ ৬৯ হাজার ৬১২ জন আক্রান্ত হয়েছে করোনায়। যার মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ৬৫১৮ জন।

 

Developed by :