Wednesday, 28 September, 2022 খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |




‘নানকার কৃষক বিদ্রোহ দিবসকে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির দাবি’

নানকার শহীদ স্মৃতি সৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন করছেন বিয়ানীবাজার পৌরসভার মেয়র ফারুকুল হক

বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম: বিয়ানীবাজারে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ৭৩ তম ঐতিহাসিক নানকার কৃষক বিদ্রোহ দিবস পালিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) বেলা ১১ টায় তিলপাড়া ইউনিয়নের সানেশ্বর ও উলুউরি এলাকার সুনাই নদীর তীরে স্থাপিত নানকার শহীদ স্মৃতি সৌধে এক মিনিট নিরবতা পালন করে অনুষ্ঠান শুরু হয়। এরপর একে একে পুষ্পস্তবক অর্পণ, আলোচনা সভা ও নাটক মঞ্চস্থ করা হয়।

নানকার শহীদ স্মৃতি সৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করে, বিয়ানীবাজার পৌরসভা, বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগ, বিয়ানীবাজার কমিউনিস্ট পার্টি, বিয়ানীবাজার সাংস্কৃতিক কমান্ড, ছাত্র ইউনিয়ন, নানকার বিদ্রোহ স্মৃতি পাঠাগার, উলুউরি সমাজকল্যাণ সংগঠন, সানেশ্বর সমাজকল্যাণ সংগঠন।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, নানকার প্রজাদের কোনো কিছুতেই স্বাধীনতা ছিল না। একপর্যায়ে জমিদারী প্রথার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে এতদ্বঞ্চলের ৬ জন কৃষক শহীদ হন। তাদের আত্মত্যাগে ১৯৫০ সালে জমিদার প্রথা বিলুপ্ত হলেও আজ পর্যন্ত কৃষক, শ্রমিক, মেহনতি মানুষের মুক্তি মেলেনি। বক্তারা নানকার কৃষক বিদ্রোহ দিবসকে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির জোর দাবি জানান।

নানকার দিবসের দিনব্যাপী এসব অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান খান, শিক্ষক ও রাজনীতিবিদ মজির উদ্দিন আনসার, বিয়ানীবাজার পৌরসভার মেয়র জিএস ফারুকুল হক, বিয়ানীবাজার উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জামাল হোসেন, কমিউনিস্ট নেতা এডভোকেট আবুল কাশেম ও আনিছুর রহমান, প্রাক্তন শিক্ষক জগদীশ চন্দ্র দাস ও অরুন কুমার দাস, বিয়ানীবাজার পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ সাইফুল আলম ঝুনু, প্যানেল মেয়র-২ মিসবাহ উদ্দিন, কবি ওয়ালী মাহমুদ, বিয়ানীবাজার সাংস্কৃতিক কমান্ডের সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ, তিলপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আব্দুল মতলিব, আইন বিষয়ক সম্পাদক মো. আব্দুল হান্নান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রমিজ উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিম উদ্দিন, সমাজসেবী মো. আলতাফ হোসেন, আলিম উদ্দিন, ইউপি সদস্য মো. আতাউর রহমান, নাট্যকর্মী আতিকুল ইসলাম রুকন, সেলিম আহমদ সেজু ও মাসুম আহমদ সানি, রাজনীতিবিদ বিবেকানন্দ দাস বিবেক, কেতকী রঞ্জন দাস, সন্ধি ভট্টাচার্য্য, উবায়দুল হক, শিক্ষক সাধন চন্দ্র দাস প্রমুখ।

নানকার শহীদ স্মৃতি সৌধে শিশুদের উপস্থিতি

পরে নানকার কৃষক বিদ্রোহ আন্দোলনের পটভূমি নিয়ে আব্দুল ওয়াদুদ রচিত নাটক ‘বিদ্রোহী নানকার’ মঞ্চস্থ হয়।

 

Developed by :