Thursday, 29 September, 2022 খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |




জিএস ফারুকুল হক (চামচ) অপ্রতিরোধ্য, জয় যেন হাতের মুঠোয়!

বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম: বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদ ’৯৪ এর জিএস ও আওয়ামী লীগের প্রতিবাদী স্বতন্ত্র প্রার্থী ফারুকুল হক অনেকটা অপ্রতিরোধ্য। নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা, জনপ্রিয়তা ও ভোটে তিনি সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে। নানা কৌশল, বাধার প্রাচীর কিংবা প্রতিহিংসা করেও তাঁকে দমানো যাচ্ছে না।

অনিয়ম, দুর্নীতি ও কথিত সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে ফারুকুল হকের বক্তব্য সাধারণ মানুষ ও ভোটার গুণমুগ্ধ হয়ে শুনছেন। এ যেনো ক্ষুদে নবদ্বীপ খ্যাত পঞ্চখণ্ড তথা বিয়ানীবাজারের নতুন এক বংশিবাদক। নির্বাচনী এলাকার সাধারণ মানুষের সাথে কথা বলে এমন ধারণা পাওয়া গেছে।

চামচ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন বর্তমান সময়ের অত্যন্ত প্রভাবশালী ও নির্মোহ ব্যক্তিত্ব জিএস ফারুকুল হক। তিনি স্বজনপ্রীতি দূর, সমবণ্টন ও ন্যায়প্রতিষ্ঠার দীপ্ত শপথ নিয়ে মেয়র পদে নির্বাচন করছেন।

এ সময়ে ফারুকুল হকের একটাই বক্তব্য, ‘নির্বাচন হচ্ছে অন্যায়কে ভেঙ্গে ফেলার এবং ভয়ঙ্কর দেয়াল ধ্বংস করার জন্য মানুষের দ্বারা তৈরি সবচেয়ে শক্তিশালী হাতিয়ার।’ তিনি আরো বলেন, ‘আমি পাথরের বুকে কোনো কিছু খোদাই করার পরিবর্তে মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নেয়ার জন্য আমৃত্যু চেষ্টা করে যাবো।’

ছাত্রলীগের সাবেক এ ত্যাগী নেতার প্রতি সিংহভাগ সাবেক ছাত্রনেতাদের সমর্থন রয়েছে। পাশাপাশি ইউরোপ, আমেরিকা ও মধ্যপ্রাচ্যের অনেকেই সমর্থন করছেন প্রতিশ্রুতিশীল মেয়ের প্রার্থী ফারুকুল হককে।

মৃত্যুঞ্জয়ী নেতা জিএস ফারুকুল হক সমর্থকদের মতে, ১৫ জুন নির্বাচনে চামচ প্রতীকের জয় নিশ্চিত। এ মুহূর্তে জনগণের মধ্যে ইভিএম কারসাজির যে আশংকা দেখা দিয়েছে সেটি তারা একেবারে উড়িয়ে দিচ্ছেন না। এ ব্যাপারে তাদের স্পষ্ট বক্তব্য, বিজয় ছিনিয়ে নিতে কোন ধরণের পক্ষপাতিত্ব, কারসাজি করা হলে সাথে সাথে দাতভাঙ্গা জবাব দিতে হাজার হাজার মানুষ প্রস্তুত রয়েছেন।

জিএস ফারুকুল হক বলেন, আগুন নিয়ে খেললে কী হয় তা ইতিমধ্যে সুবিধাভোগীরা দেখছেন। এরপরও বোধদয় না হলে জনগণ সমুচিত জবাব দিবে। তিনি আশাবাদী নির্বাচন কমিশন, প্রশাসন ও সরকারযন্ত্র একটি স্বচ্চ ভোট উপহার দিয়ে দেশবাসীর কাছে দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে।

 

Developed by :