Monday, 26 September, 2022 খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |




জনপ্রিয়তায় শীর্ষে ‘প্রতিবাদী’ ফারুকুল হক

বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম: বিয়ানীবাজার পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে ‘প্রতিবাদী’ স্বতন্ত্র প্রার্থী বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদ ’৯৪ এর জিএস ফারুকুল হক বাজিমাত করতে যাচ্ছেন। নির্বাচনের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত তিনি জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন। দলমত নির্বিশেষে সাবেক ও বর্তমান সাবেক ছাত্রনেতাদের সিংহভাগ সমর্থন রয়েছে তাঁর প্রতি। তিনি অন্যায়, স্বজনপ্রীতি ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদী কণ্ঠ হিসেবে নির্বাচন করছেন বলে জানা গেছে।

জিএস ফারুকুল হকের প্রতি নিজ এলাকা কসবা-খাসা গ্রামের সাধারণ মানুষ ও ভোটারদের অকুণ্ঠ সমর্থন থাকার আভাস পাওয়া গেছে। এ কারণে ফারুকুল হককে সমর্থন দিয়ে কসবা বড়বাড়ির কৃতিসন্তান বিয়ানীবাজার সদর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মাসুক আহমদ তার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন। শুধু প্রত্যাহার নয়; নির্বাচনী প্রচারণায় ফারুকুল হকের সাথে তিনি সার্বক্ষনিক রয়েছেন। মাসুক আহমদের ভাষায়, ‘ফারুকুল হক একজন ভালো মানুষ। তার পক্ষে কাজ করলে দুর্নাম হবে না বরং এলাকার সুনাম বৃদ্ধি পাবে।’

জানা যায়, নির্বাচনের সময় যত ঘনিয়ে আসছে, ফারুকুল হকের ভোটের পাল্লা তত ভারি হচ্ছে। তিনি ২, ৩ ও ৪নং ওয়ার্ডে লিড করার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। এছাড়া, প্রতিটি সেন্টারে তার বিপুল সংখ্যক ভোট রয়েছে। অনেকেই দলীয় প্রতীকের পেছনে ঘুরলেও অন্তরে মৃত্যুঞ্জয়ী ফারুকুল হকের ‘চামচ’ প্রতীক বিদ্যমান।

ফারুকুল হক কোন সিন্ডিকেটের প্রার্থী নয়। তিনি প্রকাশ্যে বলেছেন, অনিয়ম ও দুর্নীতিমুক্ত পৌরসভা গঠনের লক্ষ্যে নির্বাচন করছেন। বিজয়ী হলে সমবন্টনের মাধ্যমে পৌর এলাকার অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধন করবেন।

এদিকে, ফারুকুল হকের অসংখ্য সমর্থক রাতদিন ভোটারদের ঘরে ঘরে গিয়ে চামচ প্রতীকে ভোট ভিক্ষা চাচ্ছেন। তিনি নিজেও বসে নেই। বিপুল সাড়া পাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন।

জিএস ফারুকুল হক বলেন, নির্বাচনে জয়-পরাজয় থাকবে এতে আমি ভীত নই। তবে, নিশ্চিত বিজয় আমাকে ডাকছে। এজন্য ভোটাররা দ্রুত আমাকে আপন করে নিচ্ছেন। তিনি বলেন, কেউ কেউ পরাজয়ের ভয়ে মিথ্যা ও প্রপাগা-া শুরু করেছেন। আমি এসবে কেয়ার করিনা। সত্যকে আলিঙ্গন করে অবশ্যই ১৫ জুন বিজয়ের মালা পরবো।

 

Developed by :