Friday, 9 December, 2022 খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |




বিয়ানীবাজার পৌরসভায় নৌকার মাঝি আব্দুস শুকুর, বিদ্রোহী হবেন টিটু-ফারুক!

ছাদেক আহমদ আজাদ: বিয়ানীবাজার পৌরসভা নির্বাচনে ফের আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন মো. আব্দুস শুকুর। গতকাল শুক্রবার বিকেলে দলের সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভায় মেয়র পদে আব্দুস শুকুরের নাম চূড়ান্ত করা হয়। তিনি গত নির্বাচনেও দলীয় প্রতীক নৌকা নিয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন।

জানা যায়, বিয়ানীবাজার পৌরসভায় এবারের নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের জন্য কেন্দ্রে আবেদন করেছিলেন ৭ জন। প্রত্যেকেই আশাবাদী ছিলেন নৌকা পাবেন। কিন্তু রাতে আব্দুস শুকুরের নাম ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই দলের অপর সম্ভাব্য প্রার্থীরা অনেকটা চুপসে গেছেন। আবার আওয়ামী লীগের দু’জন মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রতীক না পেলেও নির্বাচন করার আভাস পাওয়া গেছে।

এরমধ্যে বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল কুদ্দুছ টিটু গত বৃহস্পতিবার রাতে নবাং-শ্রীধরা গ্রামের বৈঠকে তাঁর প্রতি ‘দল অবিচার করলে’ তিনি প্রকাশ্যে স্বতন্ত্র নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছেন। এছাড়া, যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদ ’৯৪ এর জিএস এবং উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক মো. ফারুকুুল হক স্বতন্ত্র নির্বাচন করার কথা রয়েছে।

এদিকে, নৌকার মাঝি আব্দুস শুকুর ও দলের সম্ভাব্য বিদ্রোহী প্রার্থী ফারুকুল হক একই গ্রামের। শেষ পর্যন্ত এ দু’জন নির্বাচন করলে জয় হাতছাড়া হওয়ার সমূহ আশঙ্কার কথা ভাবছেন নেতাকর্মীরা। এছাড়া, দলের অপর বিদ্রোহী আব্দুল কুদ্দুছ টিটু। তিনিও নৌকার ভোট ব্যাংক খ্যাত প্রতিবেশি গ্রাম শ্রীধরার।

বিগত নির্বাচনে বেশ ক’জন প্রার্থী থাকলেও রহস্যজনক কারণে কেন্দ্রে শুধুমাত্র আব্দুস শুকুরের নাম প্রেরণ করা হয়। এজন্য আওয়ামী লীগে লেজেগুবরে অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এবার কেউ কাউকে ছাড় দিতে নারাজ বলে একাধিক সূত্র জানিয়েছে। বিগত নির্বাচনে মনোনয়ন বৈষম্যের কারণে এবার আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল নেতারা বিদ্রোহীদের চাপ দিতে কিছুটা ‘লজ্জাবোধ’ করছেন। প্রার্থীদের প্রশ্নের উত্তর দেওয়াটাও তাদের পক্ষে অনেকটা কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে, তৃণমূল নেতাকর্মীদের বিশ্বাস- বিদ্রোহী ঠেকাতে আওয়ামী লীগ আন্তরিক এবং যথাযথ উদ্যোগী হলে শেষ পর্যন্ত হয়তো সফলতার মুখ দেখা সম্ভব হবে।

সূত্রমতে, উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে মেয়র পদে এ পর্যন্ত মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন কমপক্ষে ১১ জন। এরমধ্য থেকে অন্তত ৮ জন নির্বাচনী মাঠে থাকার আভাস পাওয়া গেছে।

বিয়ানীবাজার পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন, বর্তমান মেয়র মো. আব্দুস শুকুর (আওয়ামী লীগ), বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের সাবেক জিএস ফারুকুল হক (আওয়ামী লীগ), যুক্তরাজ্য প্রবাসী অজি উদ্দিন (স্বতন্ত্র), প্রভাষক মো. আব্দুস সামাদ আজাদ (স্বতন্ত্র), আব্দুস সবুর (স্বতন্ত্র), আহবাব হোসেন সাজু (স্বতন্ত্র), উপজেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল কুদ্দুছ টিটু (আওয়ামী লীগ), সাবেক পৌর প্রশাসক মো. তফজ্জুল হোসেন (স্বতন্ত্র), মোহাম্মদ আবুল কাশেম (কমিউনিস্ট পার্টি), মো. সুনাম উদ্দিন (জাতীয় পার্টি) আবু নাসের পিন্টু (স্বতন্ত্র)। আরো দু’একজন মনোনয়ন সংগ্রহ করার আভাস পাওয়া গেছে। আগামী ১৭ মে পর্যন্ত প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমা করতে পারবেন।

বিয়ানীবাজার পৌরসভায় এবার প্রথমবারের মতো ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে নারী-পুরুষ মিলে মোট ভোটার রয়েছেন ২৭ হাজার ৩৬৯ জন।

 

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by :