Thursday, 25 February, 2021 খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |




বিয়ানীবাজারে একরাতে ৮ দোকানে চুরি, আতংকে ব্যবসায়ীরা

বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম: বিয়ানীবাজার পৌরশহরসহ উপজেলার কয়েকটি হাট-বাজারে একরাতে ৮টি দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি সংঘটিত হয়েছে। গতকাল রোববার দিবাগত রাতে সংঘবদ্ধ চোর দল দোকানগুলো থেকে ৫ লক্ষাধিক টাকার মূল্যবান মালামালসহ নগদ টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীসহ চরম ক্ষোভ প্রকাশ এবং দোকান মালিকরা আতংকিত রয়েছেন। চুরির বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান থানার অফিসার ইনচার্জ হিল্লোল রায়।

জানা যায়, রোববার রাতে বিয়ানীবাজার পৌরসভার খাসা নয়াবাজার পল্লীবিদ্যুৎ অফিস সংলগ্ন মার্কেটের একটি বিকাশ ও ফ্লেক্সিলোডের দোকান, ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের পাশের একটি ফার্নিচারের দোকান, উৎসব কমিউনিটির সেন্টারের দক্ষিণ ও উত্তর পাশের দু’টি ব্যাটারি, ভোগ্যপণ্য ও কফিহাউজ শপ, খশির সড়কভাঙনি এলাকার লিজেন্ড টেকনোলজি এন্ড মাল্টিমিডিয়ায় এই চুরি সংঘটিত হয়েছে। এছাড়াও একইরাতে বৈরাগীর ত্রিমুখী, কাকরদিয়া ও দুবাগ বাজারের আরও তিনটি দোকানে চুরি হয়েছে। চোর দল এসব দোকান থেকে নগদ দেড় লক্ষ টাকাসহ প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট হয়েছে বলে ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করেছেন।

এদিকে, উৎসব কমিউনিটি সেন্টারের দক্ষিণ পাশের ড্রিম কফি হাউজের স্বত্ত্বাধিকারী আব্দুল খালিক জানান, ‘রোববার রাত ১২টার দিকে তিনি দোকান বন্ধ করে বাড়ি যান। পরদিন সোমবার সকালে এসে দেখেনর সাটার খোলা ও ভাঙ্গা তালা মাটিতে পড়ে আছে। দোকানে প্রবেশ করে মালামাল ঠিকঠাক পেলেও ক্যাশে রাখা নগদ ৩০ হাজার টাকা ও সিমকার্ডসহ দুটি মোবাইল চোরেরা নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে তিনি বিয়ানীবাজার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।’

কফি হাউজের পাশের ব্যাটারি দোকানের মালিক জাকির হোসেন জানান, ‘চোর দল তার দোকানের ক্যাশে রাখা নগদ ৫ হাজার টাকা এবং ব্যাটারি চার্জ করার একটি মেশিন নিয়ে যায়।’

খশির সড়কভাঙনি এলাকার লিজেন্ড টেকনলোজি এন্ড মাল্টিমিডিয়ায় নগদ ৭০ হাজার টাকা এবং দু’টি মোবাইল ফোনসহ প্রায় লক্ষাধিক টাকার মালামাল নিয়েছে চোর দল। রাতে চুরির সেই দৃশ্যটি ধারণ হয়েছে দোকানে বসানো গোপন ক্যামেরায়। ফেসবুকে সেই ভিডিও ভাইরাল করে চোরচক্রের পরিচয় শনাক্তের অনুরোধ জানিয়েছেন দোকান মালিক আবুল কাশেম।

এদিকে, একরাতে ৮টি দোকানে চুরির ঘটনায় দোকান মালিক ও সাধারণ ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে। এসব বিষয়ে তারা থানা পুলিশ বরাবর অভিযোগের প্রস্তুতি নিচ্ছেন জানিয়ে গতকাল সোমবার দুপুরে ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীরা বলেন, সম্প্রতি থানা পুলিশ বিয়ানীবাজার পৌরসভাসহ উপজেলাজুড়ে টহল বৃদ্ধি করেছে। তবুও প্রশাসনের নাকের ডগায় এমন চুরির ঘটনায় আমরা চরম হতাশ। এ বিষয়ে তারা প্রশাসনের তৎপরতা আরও বৃদ্ধি করা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেন।

এ বিষয়ে বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ হিল্লোল রায় বলেন, দোকানে চুরির একটি অভিযোগ আমরা পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনি বলেন, রাতে প্রচণ্ড কুয়াশার মধ্যে পুলিশী টহল জোরদার করা হয়েছে। এরপরও বিচ্ছিন্ন এসব চুরির ঘটনায় আমরা আরও তৎপর হব। তিনি চোর চক্রের মূলোৎপাটনে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারসহ সোর্স নিয়োগ করবেন বলেও জানান।

 




সর্বশেষ সংবাদ

Developed by :