Monday, 30 November, 2020 খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |




ইরফান ও তার দেহরক্ষীর ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

বার্তা ডেস্ক: হাজী সেলিমের ছেলে ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের বরখাস্ত কাউন্সিলর ইরফান সেলিম ও তার বডিগার্ড মোহাম্মদ জাহিদকে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। রিমান্ড শুনানি শেষে ঢাকা অতিরিক্ত মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান নূর এ আদেশ দেন। শুনানির সময় আদালতে নৌবাহিনীর একটি টিম আদালতে হাজির ছিলেন।

বুধবার (২৮অক্টোবর) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। আদালতের সংশ্লিষ্ট থানার সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা পুলিশ উপ-পরিদর্শক আশরাফ আলী এই তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) ধানমন্ডি থানার পুলিশ পরিদর্শক আশফাক রাজীব হাসান সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। এরপর ঢাকার অতিরিক্ত মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান নূর রিমান্ড ও গ্রেপ্তার বিষয়ে শুনানির জন্য বুধবার দিন ধার্য করেন।

বুধবার ইরফান সেলিম ও জাহিদকে গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদন মঞ্জুর করেন ঢাকার অতিরিক্ত মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান নূর। এরপর তাদের রিমান্ড বিষয়ে আরেক আদালতে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে সকাল ১০ টায় তাদের কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়।

প্রসঙ্গত, সোমবার (২৬ অক্টোবর) ইরফান সেলিম ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে ধানমন্ডি থানায় হত্যাচেষ্টার মামলা করেন নৌবাহিনীর লেফটেন্যান্ট ওয়াসিফ আহমদ খান। মামলার আসামিরা হলো, ইরফান সেলিম, তার বডিগার্ড মোহাম্মদ জাহিদ, হাজী সেলিমের মদিনা গ্রুপের প্রটোকল অফিসার এবি সিদ্দিক দীপু এবং গাড়িচালক মিজানুর রহমানসহ অজ্ঞাত আরও দুই তিন জন। দীপুকে তিন দিন ও মিজানুরকে একদিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

সোমবার করা মামলায় দুপুরে র‌্যাব পুরান ঢাকায় চকবাজানে হাজী সেলিমের বাড়িতে অভিযান চালায়। সেখান থেকে র‍্যাব ইরফান সেলিম ও জাহিদকে হেফাজতে নেয়। বাসায় অবৈধভাবে মদ ও ওয়াকিটকি রাখার দায়ে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত তাদের দুই জনকে এক বছর করে কারাদণ্ড দেন। তাদের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়েছে।

 




সর্বশেষ সংবাদ

Developed by :