Thursday, 22 October, 2020 খ্রীষ্টাব্দ | ৭ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |




এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণ: যা বললেন সিলেট আওয়ামী লীগ নেতারা

সিলেট: এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে এক গৃহবধূ (১৯) ধর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি জানালেন সিলেট আওয়ামী লীগের নেতারা।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ বলেন, অপরাধী যে দলেরই হোক, অপরাধ করলে শাস্তি অবশ্যই পেতে হবে। একজন গৃহবধূকে ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠের ছাত্রাবাসে ধর্ষণ করে তারা কলেজকে কলুষিত করেছে। যার কারণে তাদের কোনো ছাড় নেই। ইতোমধ্যে আমরা পুলিশকে বলে দিয়েছি অপরাধীদের গ্রেফতার করার জন্য। সেই সাথে এ ঘটনা যারা ঘটিয়েছে তাদের গডফাদারের বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ আমাদের সাথে এ বিষয়ে কথা বলেছেন আমরা তাদের সার্বিক বিষয় বলেছি।

এমসি কলেজের প্রাক্তন কৃতী শিক্ষার্থী ও সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ বলেন, আমাদের দাবি একটাই আসামিদের গ্রেফতার করা হোক। এ ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে কেউ কোনো তদবির করলে তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হোক। সিলেটের এমসি কলেজের যে ঐতিহ্য পৃথিবী জুড়ে রয়েছে তা আজ ধ্বংসের পথে। এটা কোনোভাবে কাম্য নয়। এছাড়া এমন অপরাধীদের যারা আশ্রয়-প্রশ্রয় দিয়ে যাচ্ছেন তাদের সম্পর্কেও খোঁজ নেয়া হচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে আমরা দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে অবগত করবো।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ আরও বলেন, ধর্ষণকরীদের কোনো পরিচয় নেই। তাদের পরিচয় শুধু-তারা অপরাধী। এই লজ্জাজনক ঘটনায় আমরা অপরাধীদের শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। ইতোমধ্যে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে এ বিষয়ে কথাও হয়েছে।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান বলেন, কেউ অপরাধ করলে তাকে অবশ্যই শাস্তি পেতে হবে। ইতোমধ্যে আমরা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে বলে দিয়েছি-অপরাধী যারাই হউক তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য। এমসি কলেজের ছাত্রবাসে ধর্ষণের ঘটনা খুবই জঘন্য এবং নিন্দনীয়। আমরা অপরাধীদের শাস্তি চাই। এই ঘটনায় কেউ যাতে পার না পায় সেজন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে অনুরোধ জানিয়েছি। সেই সাথে এই ন্যাক্কারজনক ঘটনার সাথে যারা জড়িত তাদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানাচ্ছি।

সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন জানান, ছাত্রাবাসের ঘটনাটি সত্যি লজ্জাজনক। এই ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানানোর পাশাপাশি তিনি জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানান।

সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধরণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ বলেন, এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে ধর্ষণের ঘটনায় আমাদেরকে মারাত্মক ক্ষতির মুখে ফেলেছে। এই ঘটনায় যারা জড়িত তাদেরকে আইনের আওতায় নিয়ে এসে দ্রুত শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। সেই সাথে এই ঘটনায় কেউ যাতে হয়রানির শিকার না হয় সেবিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সজাগ থাকার পরামর্শ দেন তিনি।

এদিকে গণধর্ষণের ঘটনায় ছাত্রলীগ কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। শনিবার সকালে ৯ জনকে আসামি করে শাহপরাণ থানায় গণধর্ষণের শিকার তরুণীর স্বামী বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় ৬ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৩ জনকে আসামি করা হয়েছে।

 

Developed by :