Saturday, 30 May, 2020 খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |




বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজে অনলাইনে ক্লাস চালু

বার্তা ডেস্ক: মহামারি করোনা পরিস্থিতিতে বিয়ানীবাজারসহ সিলেট বিভাগের সরকারি-বেসরকারি মিলিয়ে প্রায় ২৫টি কলেজে অনলাইনভিত্তিক ক্লাস চালু শুরু হয়েছে। বাকিগুলোতেও পর্যায়ক্রমে চালু হবে ডিজিটাল পদ্ধতির এই পাঠদান।

কলেজগুলো হচ্ছে, বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজ, মুরারিচাঁদ কলেজ, মদনমোহন কলেজ, সিলেট সরকারি কলেজ, সিলেট সরকারি মহিলা কলেজ, ঢাকা দক্ষিণ সরকারি কলেজ, বিশ্বনাথ সরকারি কলেজ, হজরত শাহ জালাল র. ডিগ্রি কলেজ, জৈন্তিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, তৈইব আলী ডিগ্রি কলেজ জৈন্তাপুর, ইমরান আহমদ সরকারি কলেজ জৈন্তাপুর, বৃন্দাবন সরকারি কলেজ- হবিগঞ্জ, হবিগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজ, বাহুবল কলেজজ, সৈয়দ সঈদ উদ্দীন ডিগ্রী কলেজ- হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার সরকারি কলেজ, সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজ, সুনামগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজ, শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজ, কুলাউড়া সরকারি কলেজ ও দোয়ারাবাজার সরকারি কলেজ।

অনলাইনভিত্তিক ক্লাস চালুর বিষয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) সিলেট-এর পরিচালক প্রফেসর মাে. হারুনুর রশিদ বলেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ নির্দেশনা জারির আগেই শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে আমার কাছে রিপোর্ট চাওয়া হয়েছিলো, আমি দিয়েছি। সিলেট বিভাগে ইতোমধ্যে সরকারি-বেসরকারি মিলিয়ে প্রায় ২৫টি কলেজে অনলাইনভিত্তিক ক্লাস চালু হয়ে গিয়েছে। টেকনিক্যাল প্রিপারেশন শেষে বাকিগুলোতেও খুব শীঘ্রই এমন পদ্ধতির ক্লাস চালু হয়ে যাবে।

করোনাভাইরাসের কারণে সিলেটসহ দেশের সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এ অবস্থায় শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে নিতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতাধীন সব কলেজকে অনলাইনের মাধ্যমে ক্লাস নিতে আহŸান জানিয়েছে শিক্ষামন্ত্রণালয়। এ বিষয়ে গত ৩০ এপ্রিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের অনলাইনে এক জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওই সভার সিদ্ধান্তের আলোকে লকডাউন চলাকালীন শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে নিতে অধিভুক্ত প্রায় দুই হাজার ২৬০টি কলেজ ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে বেশ কিছু নির্দেশনা দিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক দ্বারকেশ চন্দ্র নাথ বলেন, আমাদের কলেজের লিংকে প্রবেশ করলে পাঠদান গ্রহণ করতে পারবেন শিক্ষার্থীরা। আমরা নিয়মিত তা আপলোড করছি। তাছাড়া আমাদের পৃথক আরেকটি ইউটিউব চ্যানেলও রয়েছে। সেখান থেকে শিক্ষার্থীরা পাঠ গ্রহণ করতে পারবে।

 

Developed by :