Thursday, 2 April, 2020 খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




আতশবাজি ফুটিয়ে উহানে করোনামুক্তি উদযাপন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:  করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হয়েছিল চীনের মধ্যাঞ্চলীয় হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহানে। সেখানে গত তিনদিন কোনো করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়া যায়নি। অন্যান্য প্রদেশ থেকে যে চিকিৎসকরা এসেছিল তাদের বীরের বেশে বিদায় দেওয়ার পর করোনামুক্তি আতশবাজির মাধ্যমে উদযাপন করা হয়েছে সেখানে।

সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের প্রতিবেদন অনুযায়ী, উহানের জীবন স্বাভাবিক হচ্ছে। বিধিনিষেধগুলো তুলে নেওয়া হচ্ছে। সংকট মোকাবিলায় ৬ থেকে ১০ দিনে যেসব হাসপপাতাল লতৈরি করা হয়েছিল তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে শহরের তল্লাশিচৌকিগুলো।

যে করোনাভাইরাস বৈম্বিক মহামারির রুপ নিয়ে গোটা বিশ্ব দাপিয়ে মানুষের বুকে কাপন ধরিয়ে দিয়েছে সেই ভাইরাস মোকাবিলা ও প্রতিরোধের জন্য বাহবা পাচ্ছে উহান এবং চীন। বিশ্বব্যাপী একে বড় অর্জন হিসেবে দেখা হচ্ছে। নগরবাসী সেই অর্জন উদযাপন করছে আতশবাজি আর উল্লাসে।

গত জানুয়ারি মাসে উহান শহরকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়। মানুষের যাতায়াত নিয়ন্ত্রণে বসানো হয় তল্লাশিচৌকি। সেসব চৌকি তুলে দিচ্ছেন নগরের সাধারণ মানুষ। উহানে অস্থায়ীভাবে নির্মিত ১৬টি হাসপাতাল ইতোমধ্যে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। মানুষ কাজে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

গত শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে উহানের তল্লাশিচৌকি অপসারণ। চীনের বিভিন্ন প্রদেশ থেকে আসা চিকিৎসক, নার্স ও স্বেচ্ছাসেবীরা নিজ নিজ প্রদেশে চলে গেছেন। তাদের স্যালুট দিয়ে বিদায় করেছে সেনাবাহিনী। ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিও। তবে শহরের মানুষের চলাচল এখনো নিয়ন্ত্রিত।

চীনের বাসিন্দারা আর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন না বলা চলে। দেশটিতে এখন যারা এই আক্রান্ত হচ্ছেন তাদের সবাই বিদেশফেরত। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দ্বিতীয় দফায় করোনা আবারও হানা দিতে পারে চীনে। এদিকে করোনার কেন্দ্রস্থল এখন ইউরোপ। মৃত্যুতে চীনকে ছাড়িয়ে গেছে ইতালি।

 

Developed by :