Monday, 6 July, 2020 খ্রীষ্টাব্দ | ২২ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |




৭ মাস পর স্কুলে ফিরল কাশ্মীরী শিক্ষার্থীরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: প্রায় সাত মাস পর স্কুলে ফিরেছে ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের শিক্ষার্থীরা। প্রায় ১০ লাখ শিক্ষার্থী গত সাত মাসের মধ্যে প্রথমবার স্কুলে ফেরার সুযোগ পেল। দীর্ঘদিন ধরে অবরুদ্ধ কাশ্মীরের সব স্কুল বন্ধ রেখেছিল প্রশাসন।

গত বছরের ৫ আগস্ট সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের মাধ্যমে কাশ্মীরের ওপর থেকে বিশেষ মর্যাদা তুলে নেয় ভারত। তখন থেকেই কাশ্মীরে মোবাইল ও ইন্টারনেট সেবা বন্ধ করে দেয়া হয়। দীর্ঘদিন যান চলাচলও বন্ধ ছিল।

সাম্প্রতিক সময়ে সব ধরনের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার কারণে সেখানকার জীবনযাত্রা স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে। অবরুদ্ধ সময় কাটিয়ে সোমবার প্রথমবার শিক্ষার্থীরা স্কুলে ফেরায় দীর্ঘদিনের বন্দীদশার সমাপ্তি ঘটল। এর মধ্যে শীতকালীন ছুটি থাকার কারণেও স্কুলগুলো বন্ধ ছিল।

গত সপ্তাহে কর্তৃপক্ষ এক ঘোষণায় জানিয়েছে, নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে এবং আবহাওয়ার অবস্থাও আগের চেয়ে অনেকটা ভালো। এরপরেই পুণরায় স্কুলগুলো চালু করার ঘোষণা দেওয়া হয়।

kasmir

১৯ বছর বয়সী মুসকান ইয়াকুব নামে স্থানীয় এক শিক্ষার্থী বলেন, স্কুলে আসতে পেরে আমি খুব খুশি। দ্বাদশ শ্রেণিতে প্রথম ক্লাস শুরু করেছে সে। ওই শিক্ষার্থী আরও বলেন, আমি স্কুলে আসার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিলাম। গত ৩ আগস্ট শেষবারের মতো স্কুলে ক্লাস করেছিল সে।

ওই শিক্ষার্থী বলেন, বাসায় বসে কোনো কাজই ছিল না। এমনকি পড়াশুনায় মনোযোগ দেয়াটাও কঠিন হয়ে পড়েছিল। এর আগেও কর্তৃপক্ষ স্কুল পুণরায় চালু করার ঘোষণা দিয়েছিল। কিন্তু নিরাপত্তার শঙ্কায় অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের স্কুলে ফিরতে দেয়নি।

শাফাত আহমেদ নামে স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, কিছুটা নিরাপদ অনুভব করায় আজ আমি আমার সন্তানদের স্কুলে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমি এখন ফোন করে আমার সন্তানের খোঁজ-খবর নিতে পারব। তার ১১ বছর বয়সী ছেলে এবং ছয় বছর বয়সী মেয়ে শ্রীনগর শহরের একটি স্কুলে পড়াশুনা করেন। আহমেদ বলেন, গত কয়েক মাস ধরে তিনি তার সন্তানদের স্কুলে পাঠানোর বিরোধী ছিলেন। এজন্য সরকারকেই দায়ী করেছেন তিনি।

 

Developed by :