Wednesday, 8 April, 2020 খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




বাবার পক্ষে সম্মাননা নিতে এসে কান্নায় ভেঙে পড়েন ড. নাজিয়া চৌধুরী

সিলেট: আরও ছয় ভাষা সংগ্রামীর সাথে ভাষাসংগ্রামী ও শিক্ষাবিদ ড. ছদরুদ্দিন চৌধুরীকে সম্মাননা জানানো হয় রোববার। সিলেট সিটি করপোরেশন ও সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোর ডটকম’র এই উদ্যোগে প্রয়াত অধ্যাপক ছদরুদ্দিন চৌধুরীর পক্ষে সম্মাননা গ্রহণ করেন তাঁর মেয়ে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. নাজিয়া চৌধুরী।

রোববার রাতে নগরীর একটি হোটেলে এই সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বাবার পক্ষে সম্মাননা নিতে এসে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন ড. নাজিয়া চৌধুরী। সম্মাননাগ্রহণের পর প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন নাজিয়া। এসময় পুরো হলরুমজুড়ে অন্যরকম এক পরিবেশ তৈরি হয়।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য অধ্যাপক ছদরুদ্দিন চৌধুরী ২০১৬ সালে মারা যান। বাবার স্মৃতিচারণ করতে গিয়েই কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন ড. নাজিয়া।

এ আয়োজনে আবুল মাল আবদুল মুহিত, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুস সামাদ আজাদ (মরণোত্তর), সাবেক অর্থমন্ত্রী এম সাইফুর রহমান (মরণোত্তর), শিক্ষাবিদ ড. ছদরুদ্দিন আহমদ চৌধুরী (মরণোত্তর), অ্যাডভোকেট মনির উদ্দিন আহমদ (মরণোত্তর), কমরেড আসাদ্দর আলী (মরণোত্তর) ও ডা. মো. হারিছ উদ্দিন (মরণোত্তর)-কে এই অনুষ্ঠানে সম্মাননা প্রদান করা হয়।

সম্মাননাপ্রাপ্তদের মধ্যে আবুল মাল আবদুল মুহিত সশরীরে উপস্থিত থেকে সম্মাননা গ্রহণ করেন। মরণোত্তর সম্মাননাপ্রাপ্ত ভাষাসৈনিকদের পক্ষে তাদের পরিবারের সদস্যরা সম্মাননা গ্রহণ করেন। সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুস সামাদ আজাদের পক্ষে তার পুত্র আজিজুস সামাদ ডন, সাবেক অর্থমন্ত্রী এম সাইফুর রহমানের পরিবারের পক্ষে অ্যাডভোকেট মুজিবুর রহমান, শিক্ষাবিদ ড. ছদরুদ্দিন আহমদ চৌধুরীর পক্ষে তার মেয়ে অধ্যাপক ড. নাজিয়া চৌধুরী, অ্যাডভোকেট মনির উদ্দিন আহমদের পক্ষে আবু সালেহ মো. নাইম, কমরেড আসাদ্দর আলীর পক্ষে পরিবারের সদস্য নাফিজা খানম আশা এবং ডা. মো. হারিছ উদ্দিনের পক্ষে তার পুত্র ডা. সালেহ আহমদ আলমগীর সম্মাননা গ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে আলোচক ছিলেন জাতীয় অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী ও সাবেক রাষ্ট্রদূত, কবি মোফাজ্জল করিম।

 




Developed by :