Saturday, 5 December, 2020 খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |




বেতন বাড়লেও অসন্তোষ প্রাথমিকের শিক্ষকদের

ঢাকা: সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের গ্রেড উন্নীত করে বেতন বৃদ্ধি করা হয়েছে। তবে নতুন বেতন গ্রেডে সন্তুষ্ট নয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ‘প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের’ নেতারা। দ্রুত এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানাতে ও পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করতে সভা ডাকা হবে বলে জানিয়েছেন সংগঠনের নেতারা।

রোববার এ সংক্রান্ত নির্দেশনা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে থেকে প্রকাশের পর প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের সদস্য সচিব মো. শাসছুদ্দিন মাসুদ জাগো নিউজকে বলেন, প্রধান শিক্ষকদের ১০ম ও সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড উন্নীত করতে আমরা দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছি। বর্তমানে শিক্ষকদের দাবি-দাওয়ার আন্দোলন বন্ধ করতে অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে এটি জোর করে চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, আমাদের দাবি যৌক্তিক বলে তা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে অর্থ মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব করে। অথচ অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে তা নাকচ করে শুধু সহকারী শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেডে উন্নীত করা হয়েছে। শিক্ষকরা এটি মেনে নেবেন না, এর প্রতিবাদ জানাবে। আমাদের দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। তবে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও প্রশিক্ষণবিহীন শিক্ষকদের গ্রেড পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত তুলে দেয়াকে তিনি সাধুবাদ জানিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, আমাদের দাবি বাস্তবায়নে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করা হবে। এ জন্য শিগগিরই কেন্দ্রীয় কমিটির সভা ডেকে নতুন এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানানো হবে। পাশাপাশি দাবি আদায়ে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেডে উন্নীত করা হয়েছে। রোববার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মনোয়ারা ইশরাত স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। গত বছরের ৭ নভেম্বর অর্থ বিভাগের সম্মতিক্রমে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মাঠ পর্যায়ের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের বেতনস্কেল ১৪ থেকে ১৩তম গ্রেড উন্নীত করা হয়েছে। এ নির্দেশনার ফলে এখন থেকে সহকারী শিক্ষকরা যোগদানের পর ১৩তম গ্রেডে ১১ হাজার টাকা বেসিকসহ সকল সুবিধা পাবেন।

 




Developed by :