Saturday, 3 December, 2022 খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |




সুনামগঞ্জে মাদ্রাসা সুপারের গাফিলতিতে পরীক্ষা দেয়া হলো না ১৩ শিক্ষার্থীর

সিলেট: সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার সিদ্দিকে আকবর (রা.) লতিফিয়া দাখিল মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের গাফিলতিতে এবার দাখিল পরীক্ষা দিতে পারেনি ১৩ পরীক্ষার্থী। এ কারণে ওই মাদ্রাসার সুপার মাওলানা আবদুল মুকিতকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

বুধবার বিকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোনিয়া সুলতানার নির্দেশের সংশ্লিষ্ট সুপারকে বহিষ্কার করেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মেহের উল্লাহ।

এদিকে পরীক্ষা দিতে না পেরে ক্ষোভ ও হতাশায় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা ওই প্রতিষ্ঠানের দরজায় তালা ঝুলিয়ে রেখেছে।

এ অবস্থায় গত পাঁচ দিন ধরে সুপার মাওলানা আবদুল মুকিত এলাকা ছেড়েছেন। এ নিয়ে উপজেলাজুড়ে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে।

অভিযোগের ভিত্তিতে ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ১৯৯৪ সালে উপজেলার দোহালিয়া ইউনিয়নের প্রতাপপুরসহ আশপাশের ১০ গ্রামের লোকজনের সার্বিক সহযোগিতায় মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠিত হয়। চলতি বছর ওই মাদ্রাসা থেকে ১৩ পরীক্ষার্থী দাখিল পরীক্ষায় অংশগ্রহণের কথা। কিন্তু রেজিস্ট্রেশন কার্ড ও প্রবেশপত্র না পাওয়ায় পরীক্ষা দিতে না পারায় চরম হতাশায় ভুগছেন শিক্ষার্থীরা।

এ বিষয়ে সহসুপার মাওলানা জায়েদ আহমদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিতে না পারার জন্য মাদ্রাসা সুপারই দায়ী। এ বিষয়ে সুপার আমাদের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ বা পরামর্শও করেননি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোনিয়া সুলতানা বলেন, মাদ্রাসা সুপার দাখিল পরীক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন না করিয়ে ওই বিষয়টি গোপন করে আবার পরীক্ষার আগে তাদের বিদায়ী সংবর্ধনাও দিয়েছেন; এটি অত্যন্ত দুঃখজনক।

এ জন্য মাদ্রাসার সুপারকে দায়িত্ব থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তদন্তপূর্বক এ বিষয়ে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধেও আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by :