Monday, 17 February, 2020 খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের সেমিতে বাংলাদেশ

ক্রীড়া ডেস্ক:  বাঁচা-মরার সমীকরণ ছিল। হারলে ঘরের মাঠের টুর্নামেন্টে দর্শক বনে যাওয়া গ্রুপপর্বেই। জিতলে দম ফেলে বাঁচা! জয়টাই তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে ‘অঘোষিত কোয়ার্টার’ হয়ে পড়া ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে সেমিফাইনালের টিকিট কেটেছে লাল-সবুজরা।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে রোববার গ্রুপপর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশ। মতিন মিয়া করেছেন জোড়া গোল। অন্য গোলটি ইব্রাহিমের।

উদ্বোধনী ম্যাচে প্যালেস্টাইনের কাছে ২-০তে হেরেছিল জেমি ডেরা শিষ্যরা। লঙ্কা-জয়ে ‘এ’ গ্রুপে একটি করে জয়-হারে ৩ পয়েন্ট বাংলাদেশের। সেমিতে জামালদের প্রতিপক্ষ ‘বি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন বুরুন্ডি।

এদিন ‘জিততেই হবে’ সমীকরণের মুখেই শুধু নামেনি বাংলাদেশ, নিয়মিত অধিনায়ক জামাল ভুঁইয়াকে ছাড়াও নেমেছিল। তিনি খেলতে পারেননি ঊরুর চোটে। সঙ্গী ছিল চিরায়ত সমস্যা, কে করবেন গোলের খেলার গোলটা? আক্রমণগুলোকে গোলে রূপান্তর করতে না পারার আক্ষেপ এদিন তিন তিনবার ঘুচেছে।

উদ্বোধনী ম্যাচে স্বাগতিকরা প্যালেস্টাইনের বিপক্ষে যে ব্যবধানে হেরেছে, পরের ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকেও একই ব্যবধানে হারিয়েছে দলটি। তাতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে আগেই সেমিতে গেছে তারা। রানার্সআপ হওয়ার সমীকরণ ছিল রোববারের ম্যাচে। বিপরীতে পা হড়কালেই টুর্নামেন্ট থেকে বিদায়।

রানার্সআপ হয়ে সেরা চারের রাস্তা খোলার পথে প্রথম গোলটি আসে ম্যাচের ১৭ মিনিটে। বক্সের মধ্য থেকে মতিন মিয়া ডানপায়ের শটে জাল খুঁজে নিয়ে বাংলাদেশকে উল্লাসে মাতান।

পরে আরও কয়েকটি সুযোগ তৈরি করে ফিনিশিংয়ের অভাবে ব্যবধান না বাড়িয়েই মধ্যবিরতিতে যেতে হয় বাংলাদেশকে। বিরতি থেকে ফিরে অবশ্য খেলায় ধার বাড়ে স্বাগতিকদের।

ম্যাচের ৬৪ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে ফেলে লাল-সবুজরা। এবারও গোলদাতা মতিন। মাঝমাঠে লঙ্কান এক খেলোয়াড়ের পা থেকে বল কেড়ে দ্রুতলয়ে টেনে অতিথি বক্সে ঢুকে পড়েন তিনি, সামনে তখন শুধু গোলরক্ষক, তাকে হাল্কা চালে পরাস্ত করে ডান পায়ের টোকায় মতিন জালে জড়িয়ে দেন বল।

শেষদিকে ৮৩ মিনিটে আরেকদফা ব্যবধান বাড়ায় স্বাগতিকরা। রাকিব হোসেনের ক্রসে বল পেয়ে মোহাম্মদ ইব্রাহিমের দারুণ এক গোলে ৩-০ করে ফেলে। ওই ব্যবধানেই এসেছে জয়।

গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে এমন জয়ে লঙ্কানদের বিপক্ষে মুখোমুখি লড়াইয়ের ইতিহাস আরও সমৃদ্ধ হল লাল-সবুজদের। দুদলের ১৮ দেখায় বাংলাদেশের ১২ জয়ের পিঠে শ্রীলঙ্কার হাসি থাকল মাত্র ৪ ম্যাচে। দুটি শেষ হয়েছে ড্রয়ে। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়েও তাদের চেয়ে এগিয়ে টাইগাররা, সেটি আবার ১৮ ধাপ। সাউথ এশিয়ান গেমসে সবশেষ দেখায় ব্রোঞ্জজয়ী বাংলাদেশ সবেধন যে জয়ের দেখা পেয়েছিল, সেটিও ছিল লঙ্কানদের বিপক্ষেই।

 

Developed by :