Saturday, 7 December, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার

সমঝোতা না ভোটে আ’লীগের নেতৃত্ব নির্বাচন?

ছাদেক আহমদ আজাদ   

সিলেটের গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিলকে ঘিরে কাউন্সিলরদের বাসা-বাড়িতে ভোট চাচ্ছেন দলের সম্ভাব্য পদ-প্রত্যাশীরা। কেউ কেউ সঙ্গে নিচ্ছেন ফল ও মিষ্টি জাতীয় খাবার। আবার সীমিত হারে নগদ অর্থ বিতরণের খবর নেতাকর্মীদের মধ্যে চাউর হচ্ছে। সমঝোতা না ভোটে কমিটি হবে, এ নিয়েও চলছে জোর আলোচনা।

এ অবস্থায় দীর্ঘ ১৬ বছর পর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি’র নির্বাচনী এলাকায় আগামীকাল গোলাপগঞ্জ ও পরদিন বৃহস্পতিবার বিয়ানীবাজার উপজেলায় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

এরই মধ্যে আগত অতিথিদের অভ্যর্থনা জানিয়ে দু’শহরে তোরণ নির্মাণ, ব্যানার ও ফেস্টুন টাঙিয়ে সৌন্দর্য্য বর্ধনের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। দৃষ্টিনন্দন মঞ্চ নির্মাণসহ সম্মেলনের প্রস্তুতি প্রায় শেষ পর্যায়ে বলেও জানা গেছে। এ নিয়ে স্থানীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে লক্ষ্য করা গেছে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা।

জানা যায়, ইতোমধ্যে সিলেটের তিন উপজেলায় উৎসবমুখর পরিবেশে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বালাগঞ্জ, কোম্পানীগঞ্জ ও কানাইঘাট এ তিন উপজেলায় কাউন্সিল অধিবেশনে তৃণমূল ভোটের পরিবর্তে সমঝোতার মাধ্যমে কমিটি গঠনের বিষয়টি নেতাকর্মীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে।

এভাবে শেষ পর্যন্ত গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজারে কমিটি গঠন হবে, না এ দু’উপজেলায় স্বচ্ছতার সাথে কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হবেন। এ নিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে সন্দেহ, অবিশ্বাস ও নানা কৌতুহল কাজ করছে। কাউন্সিলররা সকল বিতর্ক এড়াতে ভোটেই শীর্ষ দু’নেতা নির্বাচনের জোর দিয়েছেন। এ দু’উপজেলায় সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি।

সূত্রমতে, গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন আগামীকাল বুধবার সকাল ১১টায় পৌরসভা প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হবে। দীর্ঘ প্রতীক্ষিত এ সম্মেলনে এবার সভাপতি পদে প্রার্থী হচ্ছেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক রফিক আহমদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লুৎফুর রহমান। সাধারণ সম্পাদক পদে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সৈয়দ মিছবাহ উদ্দিন, গোলাপগঞ্জ পৌরসভার পরপর দু’বারের সাবেক মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক জাকারিয়া আহমদ পাপলু, সাহাব উদ্দিন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শরফ উদ্দিন, সাবেক ছাত্রনেতা দেলওয়ার হোসেন চুনুর নাম আলোচনায় রয়েছে। তবে, কাউন্সিল অধিবেশনে নেতৃবৃন্দ অনুরোধ করলে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী পুনরায় সভাপতির দায়িত্ব পালন করতে পারেন বলে আভাস পাওয়া গেছে।

এদিকে, আগামী বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমপ্লেক্স প্রাঙ্গণে বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এতে সভাপতি পদে বর্তমান সভাপতি হাজি আব্দুল হাছিব মনিয়া, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান খান, বর্তমান সাংগঠনিক সম্পাদক নজমুল হোসেন ও ইউপি চেয়ারম্যান মাহমদ আলী।

সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ জাকির হোসেন, বর্তমান প্রচার সম্পাদক হারুনুর রশীদ দিপু, বর্তমান দপ্তর সম্পাদক দেওয়ান মাকসুদুল ইসলাম আউয়াল, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কাশেম পল্লব, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জামাল হোসেন, আওয়ামী লীগ নেতা হুমায়ুন কবির, সেলিম আহমদের নাম আলোচনায় রয়েছে।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি আলহাজ শফিকুর রহমান চৌধুরী বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে বলেন, সিলেটে সম্মেলনের মাধ্যমে নেতাকর্মী উজ্জীবিত হচ্ছেন। নেতা নির্বাচনে আমাদের কোন পছন্দ-অপছন্দ নেই। তিন উপজেলায় কাউন্সিলে প্রার্থীরা সমঝোতা প্রক্রিয়ায় ঐক্যমত হওয়ায় ভোট ছাড়াই কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। এ প্রক্রিয়া গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজারে অনুসরণ করা হবে। যদি ঐক্যমত না হয়-তাহলে প্রত্যক্ষ ভোটে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হবেন। আমাদের প্রস্তুতি দু’ভাবেই থাকবে। – দৈনিক সিলেটের ডাক

 

Developed by :