Monday, 18 November, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




সাদা ফকিরের আস্তানায় — শমশের আলম —

ইহা একটি ফেসবুক স্ট্যাটাস। এখানে লেখক তাঁর  ব্যক্তিগত অনুভূতি ব্যক্ত করেছেন। পাঠকদের জন্য তা তুলে ধরা হলো-

শমশের আলম।।  একটা মাষ্টার ক্লাস ম্যাজিশিয়ানের কথা বলছি। সুকৌশলে কিছু পরিত্যক্ত ছাত্র অছাত্র না বুঝে পঙ্গপালের মত লাফ দিচ্ছে আর পীর মুরশিদের মত তার নামে তসবিহ গুনছে।

কিন্তু তারা জানে না যে , ঐ মিষ্টি মিষ্টি কথার ভিতর যে কি পরিমান সর্পের কাঁচা বিষ লুকায়িত আছে। একবার পরখ করে দেখ? একবার কিছু চেয়ে দেখ। আজ যে আশায় এখানে এসে ভগবান বানিয়ে প্রতিনিয়ত ফেসবুক ভারি করছ। নেতার বন্ধনা গাইছো। জীবন বিসর্জন দিতে বলছো।

আমার প্রশ্ন! তুমি কেন জীবন দিবা। দাও জীবন দাও তোমার মায়ের জন্য দাও , বাবার জন্য দাও , ভাইয়ের জন্য দাও। ওরা অন্তত বিপদে ফেলে আসবে না। আর বাকী, বাকীটুকু কেবলই ফাঁকাবুলি। গরুর গোবরের অসার ধোঁয়া ছাড়া আর কিছু নয়।

আসলে কি একবারও ভেবেছ? ওখানকার নেতার কোন বৈশিষ্ট্য আছে ? না আছে অতীত, না আছে বাগ্মিতা, না আছে বিচক্ষণতা, না আছে রাজনৈতিক প্রজ্ঞ না আছে ক্যারিয়ার ।

মানুষের সাথে সম্পর্ক এক জিনিস, আর রাজনীতি অন্য জিনিস । প্রজ্ঞা আর মেধা না থাকলে বড়বড় নেতার সাথে সম্পর্ক থাকলেও কি আসে যায় ?

আপনি মানুষকে দাওয়াত দিন। মানুষকে দাওয়াত খাওয়ান। আপনার পরিচিতির অভাব হবে না। কিন্তু এর অর্থ এই নয় যে ঐ বড় মানুষটির কাছ থেকে আপনি যা তা সুযোগ নিতে পারবেন?

দেখেন না, যে কারনে এসেছ তা তুমি তাকে বলে দেখ। লাল চা আর মাঝেমধ্যে কোন অনুষ্ঠান হলে হয়তো এক পেলেট ভাজা ভাত আর মাংশের ঝালঝুরি পেয়ে যেতে পারেন। আর বাকী সবই ফাঁকা বুলি।

সাবধান!

ওখানে সময় নষ্ট করবেন না। এ বাড়ীর তুলশীতে আর আরোধ্য চালিয়ে কি লাভ হবে ভাই? তাই সময় থাকতে নিজের জন্য একটা কিছু করো। কারন ওখানে কোন কেরামতি নেই। ওখানে তিনি নিজেই শিষ্য। আর বাকী সব ফাঁকিঝুকি ফুকফাক তন্ত্রমন্ত্র।

বাপুরা ভেবে দেখ, শুন্য কলসি বাজে বেশী — An empty vessels sound much – তাই কাপর্দকহীন কালো কুৎসিত অদল অপয়া মণ্ডপে পুজা দিয়ে কি লাভ। সময় বাঁচাও নিজের কাজে যোগ দাও। আর ঐ পংসতির বদলে নিজের মায়ের নামে নিজের পিতার নামে কবিতা লিখ। সারাজীবন প্রানের মধ্যে প্রশান্তি পাবে। বাকিটুকু বালির বাঁধ, কেবল বালিরই বাঁধ আর মরু প্রান্তরের বালির চিকচিক করা ঝলক মাত্র। বাস্তব বড় কঠিন।

সর্বশেষে মনে রেখ, কুমাগাছে নৌকার গুলুই হয় না। আর হবেও না। আর হলেও এ নৌকা নড়বড়ে। কখনও গন্তব্যে পৌছাবে না তার আগে ভেঙ্গে যাবে। আমার বলার বড় কারন হল আমি ঘরপোড়া গরু সিঁদুরে মেঘ দেখলে ভয় হয়। সকলকে ধন্যবাদ ।

 

Developed by :