Thursday, 2 December, 2021 খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |




মৌসুমীর জয়ের খবর গুজব

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০১৯-২১ মেয়াদে নেতা নির্বাচনে শুক্রবার ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (এফডিসি) শুক্রবার সন্ধ্যায় যখন ভোট গণনা চলছিল তখনই সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে মৌসুমীর জয়ের খবর। অবশ্য সেই খবরকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিলেন সভাপতি পদ প্রার্থী দুই প্রতিদ্বন্দ্বী চিত্রনায়িকা মৌসুমী ও খল অভিনেতা মিশা সওদাগর।

রাত সাড়ে ৮টার দিকে প্রযোজক সমিতির কক্ষে বসে তারা দুজনে সাংবাদিকদের বলেন, এ খবর গুজব। মৌসুমী বলেন, ছড়িয়ে পড়া গুঞ্জন সত্য নয়। আপাতত সবাইকে অপেক্ষা করতে হবে মধ্যরাত পর্যন্ত। মিশা সওদাগর বলেন, ফেসবুকে মৌসুমীর বিজয়ের খবর সত্য নয়। তিনি বলেন, রেজাল্ট যা হয় মেনে নেব। দর্শকদের আগাম শুভেচ্ছা। বিশেষ করে মৌসুমীর দর্শকদের, আমরা সবাই মৌসুমীর দর্শক।

বৃষ্টি উপেক্ষা করে সকাল ৯টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। ভোটের আগ থেকে উত্তাপ থাকলেও শেষ পর্যন্ত কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। ভোট হয়েছে সুষ্ঠুভাবেই।

এবারের নির্বাচনে মোট ৪৪৯ জন ভোটারের মধ্যে ৩৮৬টি ভোট পড়ে বলে সমকালকে নিশ্চিত করেন নির্বাচনের আপিল বোর্ডের প্রধান শামছুল আলম।

ভোটগ্রহণ শেষে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘সবার প্রতি ভালোবাসা রইলো। সবার অংশগ্রহণে সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ শেষ করতে পেরেছি।’

এবারের শিল্পী সমিতির নির্বাচন নানা কারণেই ব্যতিক্রম। ভোট গ্রহণের আগে শিল্পীদের মধ্যে চলেছে কাঁদা ছোঁড়াছুড়ি। এছাড়া এবার প্রথমবারের মতো কোনো নারী প্রার্থী সভাপতি পদে লড়েছেন। জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা মৌসুমী স্বতন্ত্র প্রার্থী হন। সভাপতি পদে মিশা-জায়েদ প্যানেল থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন মিশা সওদাগর। সহ-সভাপতি পদে প্রার্থী হন মনোয়ার হোসেন ডিপজল, রুবেল, নানা শাহ। সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান ও ইলিয়াস কোবরা। সাংগঠনিক পদে প্রার্থী হন সুব্রত। তার বিপরীতে কোনো প্রার্থী ছিল না। আন্তর্জাতিক পদে প্রার্থী হন নূর মোহাম্মদ খালেদ আহমেদ, নায়ক ইমন। দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক পদে প্রার্থী হন জ্যাকি আলমগীর। সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক পদে লড়েন দুইজন। তারা হলেন জাকির হোসেন ও ডন। কোষাধ্যক্ষ পদে অভিনেতা ফরহাদ নির্বাচন করেছেন একা।

কার্যকরী সদস্য পদ রয়েছে ১১টি। এই পদগুলোর জন্য প্রার্থী হয়েছেন ১৪ জন। তারা হলেন- রোজিনা, অঞ্জনা, অরুণা বিশ্বাস, বাপ্পারাজ, আলীরাজ, আফজাল শরীফ, রঞ্জিতা, আসিফ ইকবাল, অলেকজান্ডার বো, জয় চৌধুরী, নাসরিন, মারুফ আকিব, শামীম খান ও জেসমিন।

 




 

Developed by :