Monday, 18 November, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




অবশেষে বিয়ে হলো অনশনরত সেই প্রেমিকার

সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জের তাড়াশে বিয়ের দাবিতে অনশনের চার দিন পর অবশেষে প্রেমিক আবুল হাসেমের সঙ্গে প্রেমিকা রিমা বেগমের বিয়ে হলো। শনিবার (১৩ অক্টোবর) রাতে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে প্রেমিকের বাড়িতেই ৫০ হাজার টাকা কাবিনমূলে এই বিয়ে সম্পন্ন হয়।

স্থানীয় কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তাড়াশ উপজেলার কাউরাইল গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে আবু হাসেমের (২২) সাথে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার উত্তর কৃষ্ণগোবিন্দপুর গ্রামের মোহবুল হকের মেয়ে রিমা বেগমের প্রায় এক বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে হাসেম তার প্রেমিকার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কও স্থাপন করে একাধিকবার।

কিন্তু অনেক দিন পেরিয়ে গেলেও বিয়ে না করে নানা রকম টালবাহানা করতে দেখে ৯ অক্টোবর আবু হাসেমের (২২) বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশনে বসেন রিমা বেগম। প্রেমিক হাসেম বিয়ে না করলে রিমা আত্মহত্যা করবেন বলেও হুঁশিয়ারি দেন। এর আগেও একবার একই দাবিতে হাসেমের বাড়িতে উঠেছিলেন রিমা। বিষয়টি গ্রামের মাতব্বররা সমাধানের চেষ্টা করলেও হাসেমের পরিবারের অসহযোগিতার কারণে তা সম্ভব হয়নি। এ নিয়ে এলাকায় জনসাধারণের মধ্যে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

রিমার অনশনের সংবাদ জাগরণসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে বিষয়টি নজরে আসে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের। পরে শনিবার (১২ অক্টোবর) রাতে গ্রাম্য সালিসের মাধ্যমে আবু হাসেম ও রিমা বেগমের প্রেমের সম্পর্ক প্রমাণিত হলে আবু হাসেমের পরিবার রিমা বেগমকে স্ত্রীর মর্যাদা দিয়ে ৫০ হাজার টাকা কাবিনমূলে তাদের বিয়ে সম্পন্ন করে।

এ বিষয়ে তাড়াশ সদরের চেয়ারম্যান বাবুল শেখ বলেন, মেয়েটি ৪ দিন ধরে অনশনে ছিল। বিষয়টি শুনে গ্রাম্য প্রধানদের সাথে নিয়ে সালিস বৈঠক করা হয়। বৈঠকে সকল তথ্য সত্য প্রমাণিত হলে গ্রামের সবার উপস্থিতিতে ছেলের পরিবার দোষ স্বীকার করে মেয়েটিকে ৫০ হাজার টাকা কাবিন দিয়ে আবু হাসেম বিয়ে করে।

 

Developed by :