Wednesday, 28 September, 2022 খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |




বিয়ানীবাজার আ’লীগ: ‘কাউন্সিলরদের মতামতের ভিত্তিতে নেতা নির্বাচিত করা হবে’

বিয়ানীবাজার: বিয়ানীবাজারে শনিবার বিকেলে উৎসবমুখর পরিবেশে আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে অঙ্গসংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী জড়ো হলে বর্ধিত সভা শুরু করতে জেলা আ’লীগ নেতাদের বেশ বেগ পেতে হয়। সভায় স্থানীয় আ’লীগ নেতাদের দাবির প্রেক্ষিতে জেলা নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে বলেন, কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে কাউন্সিলরদের মতামতের ভিত্তিতে নেতা নির্বাচিত করা হবে। এখানে জেলা আওয়ামী লীগ কোন হস্তক্ষেপ করবে না।

বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজি আব্দুল হাছিব মনিয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান খানের পরিচালনায় বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও জেলা পরিষেদের চেয়ারম্যান এডভোকেট লুৎফুর রহমান, বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান, দপ্তর সম্পাদক সায়ফুল আলম রুহেল, উপ-প্রচার সম্পাদক মোস্তাক আহমদ পলাশ। সভায় উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল নেতারা বক্তব্য রাখেন।

সূত্রমতে, বর্ধিত সভায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা দীর্ঘপ্রতীক্ষিত সম্মেলন জাকজমকপূর্ণ এবং সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার ব্যাপারে জেলা নেতাদের আশ্বস্ত করেন। পাশাপাশি বক্তারা, প্রত্যক্ষ ভোটের মাধ্যমে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করতে জেলা নেতৃবৃন্দের প্রতি জোর দাবি জানান। এছাড়া, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের মধ্যে অনৈক্য, ভোটার তালিকা তৈরি এবং লাউতা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনের বিষয়টি সভায় উঠে আসে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এডভোকেট লুৎফুর রহমান বলেন, সম্মেলন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে প্রত্যেক ইউনিয়নকে ৩১ জনের কাউন্সিলর তালিকা উপজেলায় জমা দিতে হবে। তিনি শিগগির কাউন্সিলের মাধ্যমে লাউতা ইউনিয়নে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন।

এদিকে, বর্ধিত সভা শেষে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান গণমাধ্যমকে জানান, দীর্ঘদিন পর কাউন্সিল হওয়াতে নেতাকর্মীরা উচ্ছ্বসিত। এজন্য শুরুতে কিছুটা হৈ চৈ হলেও সভা সফল ও সার্থক হয়েছে। তিনি বলেন, কাউন্সিলরদের মতামতের ভিত্তিতে নেতা নির্বাচিত করতে জেলা আ’লীগ পুরোপুরি প্রস্তুত রয়েছে। এডভোকেট নাসির খান আরো বলেন, দলের বিদ্রোহীরা দায়িত্বশীল পদে প্রার্থী হতে পারবেন কি-না, এ নিয়ে কেন্দ্রের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এখনো আমরা পাইনি।

সায়ফুল আলম রুহেল জানান, ৮ নভেম্বর সিলেট প্রধানমন্ত্রী এলে বিয়ানীবাজারের সম্মেলন দু’একদিন আগানো হতে পারে, নতুবা নির্ধারিত তারিখ ৭ নভেম্বর হবে। তিনি বলেন, এখন থেকে দলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এক্যবদ্ধভাবে দলীয় কার্যক্রম চালাবেন। তাদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির অবসান হয়েছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান খান বলেন, জেলা নেতৃবৃন্দের নির্দেশনা উপজেলা কার্যকরি কমিটির সভায় আলোচনা সাপেক্ষে বাস্তবায়ন করা হবে। সভাপতি হাজি আব্দুল হাছিব মনিয়া বলেন, দলকে গতিশীল করতে দীর্ঘদিন ধরে আমি আর আতাউর ভাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করেছি। আমাদের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হলেও জেলা নেতাদের মাধ্যমে তা নিরসন হয়েছে। তিনি সম্মেলন সফল করতে দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।

 

Developed by :