Sunday, 20 October, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৫ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




অন্তিম শয়ানে আল্লামা শুয়াইবুর রহমান বালাউটি, জানাজায় লাখো মানুষের ঢল

জকিগঞ্জ: লাখো মানুষের চোখের জলে আল্লামা শুয়াইবুর রহমান বালাউটি ছাহেবকে শেষ বিদায় দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার বিকেল ৩টায় ছাহেব বাড়ির সন্নিকটস্থ জকিগঞ্জের রতনগঞ্জ বাজারের পাশের হেলিপ্যাডে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশ নেন আলেম-উলামা, জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদ, শিক্ষক, সাংবাদিক সহ সর্বস্থরের লাখো মানুষ। নির্ধারীত সময়ের আগেই বিশাল মাঠ ছাপিয়ে পুরো এলাকা লোকে লোকারণ্য হয়ে যায়। তীব্র যানজটে বন্ধ হয়ে যায় জকিগঞ্জ আটগ্রাম সিলেট সড়ক।

জানাযার পূর্বে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন আল্লামা ইমাদ উদ্দিন চৌধরী ফুলতলী, শায়খুল হাদীস আল্লামা হবিবুর রহমান, আল্লামা নজমুদ্দীন উদ্দিন চৌধুরী ফুলতলী, নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি অ্যাড. আব্দুর রকিব, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ, উপজেলা চেয়ারম্যান লোকমান উদ্দিন চৌধুরী, শাহজালাল ডি ওয়াই সুবহানীঘাট আলীয়া মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল কমর উদ্দিন চৌধুরী ফুলতলী, আনজুমানে আল ইসলাহ’র কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব অধ্যক্ষ মুফতি এ কে এম মনোহর আলী, রাখালগঞ্জ কামিল মাদ্রাসার সাবেক প্রিন্সিপাল মাওলানা হাবিবুর রহমান, চানগ্রাম ফাজিল মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা মোস্তাক আহমদ, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ইকবাল আহমদ, হলিয়ারপাড়া আলীম মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা ময়নুল ইসলাম পারভেজ, চান্দাইপাড়া আলিম মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা সরওয়ারে জাহান, সাইয়্যিদ খালেদ আহমদ আল মাদানী উজানডিহী ভারত, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাকীম হায়দর, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুস ছবুর, বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সভাপতি আখতার হোসেন জাহেদ ও ভাদেশ্বর মডেল ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসার প্রভাষক মাওলানা ইউনুস আহমদ প্রমূখ।

জানাযায় ইমামতি করেন আল্লামা শুয়াইবুর রহমানের ছাহেবজাদা মাওলানা মুফতি মো. উবায়দুর রহমান নিজাম।

প্রসঙ্গত, দক্ষিণসুরমার জালালপুর আলীয়া মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ, প্রবীণ আলেমে দ্বীন ও বুযুর্গ, আল্লামা ফুলতলী (রহ.)এর খলিফা আল্লামা শুয়াইবুর রহমান(৮৬) বালাউটি ছাহেব সিলেটের মাউন্ট এ্যাডোরা হাসপাতালে বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন। কর্মজীবনে তিনি ১৯৬২ থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত বাদেদেওরাইল ফুলতলী দাখিল মাদ্রাসার সুপারিনটেনডেন্ট ছিলেন। আটগ্রামের আমজাদিয়া দাখিল মাদ্রাসায়ও তিনি সুপার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এরপর তিনি জালালপুর মাদ্রাসার অধ্যক্ষ হিসেবে যোগ দেন। নিজ বাড়ি জকিগঞ্জের রতনগঞ্জের বালাউটে তিনি দারুল কোরআন হাফিজিয়া মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করেন।

প্রথম স্ত্রীর ইন্তেকালের পর তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করেন। ৯ ছেলে ১ মেয়েসহ বিপুল সংখ্যক ভক্ত, মুরিদান ও শুভানুধ্যায়ীকে শোক সাগরে ভাসিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন জকিগঞ্জ তথা উত্তর-পূর্ব সিলেটবাসীর প্রিয় মানুষ প্রিয় বালাউটি ছাহেব। আল্লামা বালাউটির ইন্তেকালে শোকের ছায়া নেমে এসছে ভক্ত অনুরক্ত ও স্বজনদের মাঝে।

 

Developed by :