Sunday, 20 October, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৫ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




বিয়ানীবাজারে ‘চেতনায় বাংলাদেশ’ ম্যুরালের উদ্বোধন

বিয়ানীবাজার: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি বলেছেন, বিগত সময়ে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ক্ষমতায় এসে নানাভাবে মুক্তিযুদ্ধকে বিতর্কিত করেছে। তারা যুদ্ধাপরাধীদের গাড়িতে পতাকা দিয়েছে। ইতিহাস বিকৃতির মাধ্যমে নতুন প্রজন্মকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টায় লিপ্ত ছিল।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার ক্ষমতায় এসে পাঠ্যপুস্তকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস সন্নিবেশিত করেছে। আদালতের রায় কার্যকর করায় যুদ্ধাপরাধীদের অনেকের ফাঁসি হয়েছে। সাবেক মন্ত্রী নাহিদ বলেন, বাঙালির ইতিহাস নিয়ে অঙ্কিত ম্যুরাল আগামী প্রজন্মকে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। তিনি সর্বদা ম্যুরাল পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার আহ্বান জানান।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা পরিষদের পশ্চিম-দক্ষিণ পাশের সীমানা প্রাচীরে অঙ্কিত ‘চেতনায় বাংলাদেশ’ ম্যুরালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজী আরিফুর রহমানের সভাপতিত্বে ও প্রাথমিক সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা মাসুম মিয়ার পরিচালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিয়ানীবাজার পৌরসভার মেয়র মো. আব্দুস শুকুর, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জামাল হোসেন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) খুশনূর রুবাইয়াত, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজি আব্দুল হাছিব মনিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ জাকির হোসেন, দপ্তর সম্পাদক দেওয়ান মাকসুদুল ইসলাম আউয়াল, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আব্দুল কাদির, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ সভাপতি আবুল হোসেন খসরু, পিএইচজি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হাছিব জীবন, উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজানুল ইসলাম লায়েক।

উল্লেখ্য, বিয়ানীবাজার উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ৮০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৫ ফুট প্রস্থ বিশিষ্ট এ দেয়াল ম্যুরাল সিরামিক টাইলস দিয়ে অঙ্কিত। এ ম্যুরালটি ১৯৫২ থেকে ১৯৭১ সালের ইতিহাস নিয়ে রচিত হয়েছে। ম্যুরাল তৈরি ও স্থাপনায় ছিলেন সিলেট আর্ট এন্ড অটিস্টিক স্কুলের প্রধান শিক্ষক ইসমাইল গণি হিমন।

এদিকে, গতকাল সকালে নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি’র সাথে উপজেলা কনফারেন্স হলে দলমত নির্বিশেষে উপজেলার সকল শ্রেণির মানুষ গণসাক্ষাৎ করেন। এ সময় তিনি তাদের কথা শুনেন এবং ব্যক্তিগত ডায়েরিতে প্রত্যেকের বক্তব্য লিপিবদ্ধ করেন।

 

Developed by :