Monday, 23 September, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




আবদুস সবুর মাখনের 'হিমশীতল স্পর্শ' গল্পগ্রন্থের প্রকাশনা কাল

‘ফাঁকা বুলি আওড়ানোর যুগে তিনি নিরবে নিভৃতে চালিয়ে যাচ্ছেন আপন কর্ম’

নুর আহমদ   

দীর্ঘায়ু হোন শ্রদ্ধেয় মাখন ভাই

আবদুস সবুর মাখন আপাদমস্তক একজন লেখক, সাংবাদিক ও কবি। সর্বদা প্রচার বিমুখ তিনি। অনেকেই যখন কাজের ভারে নুজ্য, এমন ফাঁকা বুলি আওড়াতে আওড়াতে ক্লান্ত, তখন তিনি নিরবে নিভৃতে চালিয়ে যান আপন কর্ম।

বিশেষ করে তাঁর লেখা দৈনিক সিলেটের ডাক এর প্রতিদিনের সম্পাদকীয় যেন একেকটি শিল্পকর্ম। বছরের পর বছর ধরে আপন মনে এই কাজটি করে যাচ্ছেন তিনি। কাউকে কখনো নিজ থেকে বলেননি সম্পাদকীয় তিনি লেখেন।

সাংবাদিকদের মৌলিক লেখালেখিতে উৎসাহ প্রদানের লক্ষ্যে প্রতিবছর একজন সাংবাদিকের গ্রন্থ প্রকাশ করবে সিলেট প্রেসক্লাব। এ বছর আবদুস সবুর মাখন ভাইয়ের মত গুনী লেখকের গল্পগ্রন্থ হিমশীতল স্পর্শ প্রকাশ করছে।

আগামীকাল ২২ আগস্ট, বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টায় প্রেসক্লাবের আমীনূর রশীদ চৌধুরী মিলনায়তনে গ্রন্থটির প্রকাশনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।
আমার ধারণা প্রকাশনা অনুষ্ঠানের এই দাওয়াত হয়তো নিজ থেকে কাউকে দিতে যাবেন না প্রচার বিমুখ এই মানুষটি। সহকর্মীদের মধ্যে মাখন ভাইয়ের লেখার যারা ভক্ত আমরা অনেকেই অনেকটা অনুনয় বিনয় করে পান্ডুলিপি জমা দেয়ার জন্য তাকে সম্মত করি। সিলেট প্রেসক্লাব ও তাঁর যথাযত মুল্যায়ন করেছে।

আবদুস সবুর মাখন ভাইয়ের সততা, কাজের প্রতি নিষ্ঠা নিয়ে প্রশ্ন তোলার মত কোন কর্ম আমরা সহকর্মী কেউ কখনো দেখিনি। যারা কাছে ভিড়েছেন তারা অকপটে স্বীকার করে নিবেন এই বিষয়টি। মাখন ভাইয়ের স্পষ্টবাদীতার ভক্ত আমি। তাঁর কাছে কোন রকম দালালি বা ফাঁকিবাজি, কারো কাছ থেকে সুবিধাভোগী হওয়ার কারনে প্রতিবেদন তৈরিতে রিপোর্টারকে প্রভাবিত করার চেষ্টা এমন অভিযোগ বুকে হাত দিয়েও কেউ করতে পারবেন না। কখনো কারো ঠোঁটে ওঠার জন্য নিজের ব্যক্তিত্বকে বিষর্জন দিতে দেখিনি।

সৃষ্টিশীল এই লেখকের সৃষ্টি কর্ম নিয়ে বিশিষ্টজনেরা মুল্যায়ন করবেন ‘হিমশীতল স্পর্শ’র প্রকাশনা অনুষ্ঠানে। এতে সকলের উপস্থিতি কামনা করছি। দীর্ঘায়ু কামনা করছি শ্রদ্ধেয় এই মানুষটির।

(এই লেখাটি ফেসবুক থেকে নেয়া হয়েছে)

লেখক: সাংবাদিক। সিনিয়র রিপোর্টার, দৈনিক সিলেটের ডাক।

 





Developed by :