Sunday, 8 December, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




কুলাউড়ায় অস্ত্রসহ দুই ডাকাত আটক

মৌলভীবাজার: কুলাউড়া উপজেলার ভাটেরা ইউনিয়নে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবি, সহকারী এটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট খালেদ আহমদের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনার সাথে জড়িত দুই ডাকাতকে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (২ আগস্ট) রাতে পৃথক অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে পুলিশ। আটককৃত ডাকাতদের ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে শনিবার (৩ আগস্ট) মৌলভীবাজার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

আটক দুই ডাকাতের নাম কামরুল ইসলাম (২৩) ও বশির উদ্দিন (২৬)।

জানা যায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাশেদুক হকের নেতৃত্বে ডিবি’র ওসি বিনয় ভূষন রায়, কুলাউড়া থানার ওসি মো. ইয়ারদৌস হাসান ও ওসি (তদন্ত) সঞ্জয় চক্রবর্তীসহ অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

পুলিশ জানায়, গত ৩০ জুলাই রাতে ভাটেরা ইউনিয়নের খারপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ও বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী, সাবেক সহকারী এটর্নি জেনারেল, সুপ্রিমকোর্ট বার এসোসিয়েশনের সাবেক সহ-সভাপতি খালেদ আহমদের বাড়িতে ডাকাতি সংঘটিত হয়। এরপর থেকে ডাকাতদের আটক করতে পুলিশি তৎপরতা চলতে থাকে। তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে পুলিশ সিলেট স্টেশন বাজার থেকে ডাকাতির মূল হোতা কামরুল ইসলাম খানকে (২৩) আটক করে। আটক কামরুল ইসলাম খান কুলাউড়া উপজেলার ভাটেরা ইউনিয়নের খারপাড়া গ্রামের ইউছুফ খান ওরফে সাদ্দামের পুত্র। তার বিরুদ্ধে ফেঞ্চুগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা রয়েছে।

তার দেয়া তথ্যমতে হবিগঞ্জের আউশকান্দি থেকে আব্দুস সাত্তার ওরফে রাজুকে (২৬) আটক করা হয়। আটক আব্দুস সাত্তার ওরফে রাজু কমলগঞ্জ উপজেলার শ্রীমতপুর গ্রামের মৃত বশির উদ্দিনের পুত্র। তার বিরুদ্ধে ৩টি ডাকাতির মামলা রয়েছে। আটককৃতদের দেয়া জবানবন্দিতে ডাকাতির সময় ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্র শটগান, ৪ রাউন্ড গুলি ও অনেকগুলো স্ক্রু ড্রাইভার উদ্ধার করা হয়।

কুলাউড়া থানার ওসি মো. ইয়ারদৌস হাসান জানান, আটককৃতদের ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। কামরুলে বিরুদ্ধে কুলাউড়া থানায় অস্ত্র আইনে পৃথক একটি মামলা হয়েছে।

 

Developed by :