Saturday, 17 August, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ২ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




সিলেট জেলা যুবলীগের কাউন্সিল শুরু : সমঝোতায় ৫জনের প্রার্থীতা প্রত্যাহার

সিলেট: সিলেট জেলা যুবলীগের দ্বিতীয় অধিবেশন চলছে। সোমবার (২৯ জুলাই) সন্ধ্যা ৬টা থেকে কবি নজরুল অডিটোরিয়ামে চলছে যুবলীগের দিত্বীয় অধিবেশন। সেখানে কাউন্সিলরদের ভোট প্রয়োগের মাধ্যমে জেলা যুবলীগের সভাপতি ও সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার কথা। কিন্তু ভোট প্রয়োগের ঠিক আগ মূহুর্তে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ঠিকে থাকা অন্যান্য প্রার্থীদের সাথে সমঝোতার ভিত্তিতে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেছেন ৫ জন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী।

সূত্র জানায়, দীর্ঘ ১৬ বছর পর সিলেট জেলা যুবলীগের সম্মেলন শুরু হয় সোমবার সকাল ১১ টায়। সিলেট নগরীর রেজিস্ট্রি মাঠে পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে যুবলীগের সম্মেলনের উদ্বোধন করেন যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী। আর এই অনুষ্টানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান বিষয়ক মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি। প্রথম অধিবেশন শেষে সন্ধ্যা ৬ টায় কবি নজরুল অডিটোরিয়ামে শুরু হয় যুবলীগের দিত্বীয় অধিবেশন। সেখানে কাউন্সিলরদের ভোট গ্রহণ শুরু হওয়ার ঠিক আগ মুহুর্তে প্রতিদ্বন্ধিতায় ঠিকে থাকা প্রার্থী ও নেতৃবৃন্দের অনুরোধে প্রার্থীতা প্রত্যার করেন ৫ জন।

এ ৫ জনের মধ্যে রয়েছেন, সভাপতি প্রার্থীতা ঘোষণাকারী অ্যাডভোকেট ছালেহ আহমদ হীরা, অ্যাডভোকেট মুজিবুর রহমান, সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক মো. জাফরান জামিল, যুবলীগ নেতা শামিম ইকবাল। আর সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেন সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি কামাল উদ্দিন।

ওই ৫ প্রার্থীর প্রার্থীতা প্রত্যাহারের ফলে প্রতিদ্বন্ধিতায় ঠিকে রয়েছেন সভাপতি পদে ৩ জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে ৪ জন । এদের মধ্যে রয়েছেন, সভাপতি পদে বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শামীম আহমদ (ভিপি), সেলিম উদ্দিন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অ্যাডভোকেট আলমগীর।

আর সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন, খাদিমনগর ইউপি চেয়ারম্যান ও যুবলীগ নেতা অ্যাডভোকেট আফসর আহমদ, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, শামিম আহমদ ও অ্যাডভোকেট জাহিদ সারোয়ার সবুজ। ওই ৭ জনের মধ্যেই ভোটের মাধ্যমে সিলেট জেলা যুবলীগের আগামীর সভাপতি ও সম্পাদক নির্বাচিত হবেন।

 

Developed by :