Saturday, 3 December, 2022 খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |




ডেঙ্গুর পরীক্ষায় নির্ধারিত ফি ৫০০ টাকা

ডেঙ্গু জ্বরের ভয়ংকর বিস্তারে দেশের মানুষ এখন আতঙ্কিত ও দিশেহারা। ডেঙ্গুর প্রকোপ বাড়ায় জ্বর হলেই রক্ত পরীক্ষা করতে আক্রান্তরা ছুটছেন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল ক্লিনিক কিংবা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে। মানুষের এই অসহায়ত্বকে পুঁজি করে চলে ইচ্ছেমতো ফি আদায়। বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ায়। ডেঙ্গুর পরীক্ষায় অতিরিক্ত ফি আদায় করা নিয়ে গত বৃহস্পতিবার উষ্মা প্রকাশ করেন হাইকোর্ট। বিষয়ে নিয়ে সোচ্চার হন জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও বাংলাদেশ প্রতিদিনের নির্বাহী সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমান। তার লেখা ‘ডেঙ্গুযুদ্ধে বেসরকারি হাসপাতাল মালিকগণ মুনাফা লুটবেন না’ কলামটি বাংলাদেশ প্রতিদিনের পাশাপাশি পূর্বপশ্চিমেও প্রকাশ করা হয়। পীর হাবিবুর রহমানের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে লেখাটি সোশাল মিডিয়ায় অনেকেই শেয়ার করেন। এতে টনক নড়ে সংশ্লিষ্টদের। অবশেষে ডেঙ্গু জ্বরের পরীক্ষায় ইচ্ছে মতো ফি আদায়ে লাগাম টানার উদ্যোগ নেয় সরকার।

রোববার (২৮ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে স্বাস্থ্য ভবনের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এই সভা অনুষ্ঠিত এক সভায় ডেঙ্গু টেস্টের মোট তিনটি পরীক্ষার ফি ঠিক করে দেওয়া হয়েছে। প্রাথমিক পরীক্ষা এনএসওয়ান এবং আইজিএম ও আইজিইর জন্য নেওয়া যাবে এই ৫০০ টাকা। এতদিন ৮০০ থেকে দুই হাজার টাকা পর্যন্ত আদায়ের তথ্য ছিল।আর সিবিসি (আরবিসি, প্লাটিলেট ও হেমাটোক্রিট মিলিয়ে) নেয়া যাবে ৪০০ টাকা। একদিন এক হাজার টাকা পর্যন্ত নেওয়া হতো।

রাজধানীতে হাসপাতাল/ক্লিনিক, ডায়াগনস্টিক সেন্টারের কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বৈঠকে এই নির্দেশনা অবিলম্বে কার্যকর করার সিদ্ধান্তুও নেওয়া হয়।

 

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by :