Sunday, 18 August, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৩ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট স্কুল এন্ড কলেজ: শতভাগ পাস অক্ষুন্ন থাকলেও কমেছে জিপিএ-৫

ছাদেক আহমদ আজাদ: জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ এইচএসসি পরীক্ষায় শতভাগ পাসের রেকর্ড অক্ষুন্ন রেখেছে। তবে এ প্রতিষ্ঠানটির পরীক্ষার্থী সংখ্যা বাড়লেও জিপিএ-৫ কমেছে। এ নিয়ে প্রতিষ্ঠান প্রধানদের মধ্যে চিন্তিতভাব লক্ষ্য করা গেছে। তবে সার্বিক ফলাফলে তাঁরা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

গতকাল বুধবার বেলা পৌণে দু’টায় কলেজের মাল্টিপারপাস শেডে দু’শতাধিক শিক্ষার্থীর উপস্থিতিতে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ (প্রশাসন) মেজর মোহাম্মদ কামাল হোসেন আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণা করেন। তাঁকে সহায়তা করেন কলেজের চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাধ্যক্ষ আরিফ সেলিম রেজা। এ সময় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ছাত্রছাত্রীসহ উত্তীর্ণ সকল শিক্ষার্থীরা বাঁধভাঙ্গা উচ্ছ্বাসে মেতে উঠেন। পরে কলেজের শিক্ষকবৃন্দের সাথে জিপিএ-৫ পাওয়া ছাত্রছাত্রী ফটোশেসন করেন। এ সময় তাদেরকে মিষ্টিমুখ করানো হয়।

জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ছাত্রছাত্রীরা রেজাল্ট পেয়ে অনেকটা উৎফুল্ল। সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে তারা পড়ালেখার স্বপ্নের কথা জানান। এ সময় প্রায় অভিন্ন কণ্ঠে তারা বলেন, একাগ্রতা ও নিষ্ঠার সাথে পড়ালেখা করলে জিপিএ-৫ পাওয়া মোটেও কষ্টকর নয়। তবে নিয়মিত ক্লাসে উপস্থিতি এবং শিক্ষকদের পাঠদান মনোযোগ দিয়ে শ্রবণ করার বিষয়টির উপর তারা গুরুত্বারোপ করেন।

এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে এ কলেজের ছাত্র সাকিব সিরাজ। সে স্কলারশিপ নিয়ে বিদেশে পড়ালেখা করতে চাই। একইভাবে দু’টি জিপিএ-৫ নিয়ে ডাক্তার হতে চায় ঐ কলেজের শিক্ষার্থী ফজলে এলাহী মনসুর এবং তান্নি, শাহরিয়ার জাহান সানি, মো. ইজাজুর রহমান, আকতার আহমদ সামি এবং নায়েফ আহমদ হতে চায় সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ার, জান্নাতুল আসফিয়া ম্যাজিস্ট্রেট এবং তমা বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারের অফিসার।

জিপিএ-৫ পেয়ে শাহ মো. এমদাদুল ইসলাম হতে চায় বিসিএস ক্যাডারের ফরেন এ্যাপার্স, রবিউল আহমদ সুলেমান আর্মি অফিসার এবং মারিয়া ইসলাম স্বর্ণা আইনজীবী।

সূত্রমতে, জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ থেকে এবার এইচএসসি পরীক্ষায় ৬শ’ ১৩জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। এরমধ্যে ২শ’ জিপিএ-৫ সহ শতভাগ পরীক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছেন। কলেজের বিজ্ঞান বিভাগে ৩শ’ ৪৪জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে একশ’ ৬৪জন, ব্যবসা শিক্ষা বিভাগে একশ’ ৫৭জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২০জন, মানবিক বিভাগে একশ’ ১২জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৬জন।

গতবার এ কলেজের ৫শ’ ৩১জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছিল ২শ’ ৯৬জন। কিন্তু এবার পরীক্ষার্থী গতবারের চেয়ে ৮৫জন বাড়লেও জিপিএ-৫ বাড়েনি বরং ৯৬টি কমেছে।

কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ (একাডেমিক) সহযোগী অধ্যাপক আরিফ সেলিম রেজা এ প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে বলেন, সার্বিক ফলাফলে আমরা সন্তুষ্ট হলেও বিজ্ঞান বিভাগের রেজাল্ট দেখে হতচকিত হয়েছি। এবার কেন জিপিএ-৫ কমলো বোধগম্য নয়। তবে আমাদের ছাত্রছাত্রীরা রি-এক্সাম চাইবে।

তিনি বলেন, আমরা রেজাল্ট পর্যালোচনা করবো। আগামীর জন্য ভালো ফলাফলের সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

 

Developed by :