Tuesday, 15 October, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




বিয়ানীবাজারে সাংবাদিক নির্যাতন করলেন রেষ্টুরেন্ট মালিক জসিম ।। জরুরি সভা আহ্বান

বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম: বিয়ানীবাজারে সাংবাদিককে ডেকে নিয়ে শারীরিকভাবে নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে ইনার কলেজ রোডের জিম্মি রেষ্টুরেন্ট মালিক জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে।

সম্প্রতি ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানার নিউজের জের ধরে রোববার দুপুরে তিনি সাংবাদিক পেটানোর মতো দুঃসাহসিক কাজটি করেন। আহত অবস্থায় সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম সাজুকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করেন। সেখানে জরুরী বিভাগে তার চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় স্থানীয় সংবাদকর্মীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে। নেতৃবৃন্দ প্রশাসনকে বিষয়টি অবহিত করেছেন এবং সন্ধ্যায় সংবাদকর্মীদের জরুরি যৌথ সভার আহ্বান করেছেন।

জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) বিয়ানীবাজার উপজেলা প্রশাসন ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে। এ নিয়ে বিয়ানীবাজার নিউজ২৪ এর স্টাফ রিপোর্টার এবং দৈনিক একাত্তরের প্রতিনিধি সাংবাদিক শহীদুল ইসলাম সাজু প্রতিবেদন প্রকাশ করেন। মূলত: এর জের ধরেই রবিবার কলেজ রোডের জিম্মি রেস্টুরেন্টের মালিক জসিম উদ্দিন তাকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে অত্যাচার নির্যাতন করেন।

আহত সাংবাদিক শহীদুল ইসলাম সাজু জানান, আামকে মোবাইল ফোনে ডেকে নেন জসিম উদ্দিন। রেস্টুরেন্টের বাইরে তিনি আমাকে একটি চেয়ারে বসিয়ে নিউজ কেন করলাম জানতে চান এবং কোন কিছু বোঝার আগেই মারধর শুরু করেন। এক পর্যায়ে চেয়ারের পেছন দিকে তাজ উদ্দিনসহ আরো কয়েকজন আমাকে ধরে রাখে এবং জসিম উদ্দিন একটি লাঠি দিয়ে মারতে থাকেন। এমনকি আামকে নির্যাতন শুরুর পূর্বে জসিম উদ্দিন ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার দায়িত্বে থাকা ম্যােিস্ট্রট এসিল্যান্ড জাছমিন বেগম এবং বিয়ানীবাজার নিউজ২৪ সম্পাদক আহমেদ ফয়সালকে অকর্থভাষায় গালাগাল করেন।
এ ঘটনায় বিয়ানীবাজার সাংবাদিক কমিউনিটির দায়িত্বশীলরা ক্ষোভ করেন এবং অভিযুক্ত জসিমসহ অন্যদের দ্রুত সময়ের মধ্যে গ্রেফতারের দাবি জানান।

এদিকে সাংবাদিকের উপর অমানবিক ও নিষ্ঠুর নির্যাতনের খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও থানা অফিসার ইনচার্জ দুঃখ প্রকাশ করেছেন। এমনকি উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) জাহিদুল হক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রাথমিকভাবে নির্যাতনের সত্যতা পেয়েছেন। তিনি গণমাধ্যম কর্মীদের বলেছেন, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম সাজুকে শারীরিকভাবে নির্যাতনের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিয়ানীবাজার প্রেসক্লাব, বিয়ানীবাজার রিপোর্টার্স ইউনিটি ও বিয়ানীবাজার জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন নেতৃবৃন্দ।

তাঁরা অবিলম্বে সাংবাদিক নির্যাতনকারি চিহ্নিত ব্যক্তিদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়ে গণমাধ্যমে বিবৃতি দিয়েছেন বিয়ানীবাজার প্রেসক্লাব সভাপতি আতাউর রহমান, সহ সভাপতি সজীব ভট্টাচার্য, সাধারণ সম্পাদক মিলাদ মো. জয়নুল ইসলাম, বিয়ানীবাজার রিপোর্টার্স ইউনিটিরি সভাপতি ছাদেক আহমদ আজাদ, সহ সভাপতি ফয়জুল হক শিমুল, সাধারণ সম্পাদক শাহীন আলম হৃদয়, বিয়ানীবাজার জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি আহমেদ ফয়সাল, সহ সভাপতি হাসান শাহয়িার ও মুকিত মোহাম্মদ, সাধারণ সম্পাদক শাবুল আহমেদ, সিনিয়র সাংবাদিক আব্দুল ওয়াদুদ, ইত্তেফাক প্রতিনিধি আব্দুল খালিক, উত্তরপূর্ব প্রতিনিধি রাজু ওয়াহিদ, সাপ্তাহিক সম্ভাবনা পত্রিকার সম্পাদক মাছুম আহমেদ, যুগান্তর প্রতিনিধি সুয়াইবুর রহমান স্বপন, কালেরকণ্ঠের প্রতিনিধি সিপার আহমদ পলাশ, শ্যামল সিলেট প্রতিনিধি সুফিয়ান আহমদ, জালালাবাদ প্রতিনিধি তোফায়েল আহমদ, বিজয় কণ্ঠের প্রতিনিধি জসিম উদ্দিন, সবুজ সিলেট ও নয়াদিগন্ত প্রতিনিধি আবু তাহের রাজু, যায়যায়দিন প্রতিনিধি তাজবীর আহমদ ছাইম প্রমুখ।

 

Developed by :