Tuesday, 7 April, 2020 খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




অপবাদ সইতে না পেরে ট্রেনের নিচে মাথা দিলেন যুবক

সালাউদ্দিন কাজল, চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার মোমিনপুর রেল স্টেশনের অদূরে ছাগল চুরির অপবাদ সহ্য করতে না পেরে ট্রেনের নিচে মাথা দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন শুকুর আলী (৩৫) নামে এক যুবক। শুক্রবার দিবাগত রাত ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শুকুর আলী আলমডাঙ্গা উপজেলার মাঝহাটি গ্রামের দাউদ আলীর ছেলে।

এলাকাবাসীরা জানান, গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মাঝহাটি গ্রামে ছাগল চুরির অপবাদ দিয়ে শুকুর আলীকে স্থানীয় যুবকরা পিটিয়ে আহত করে। খবর পেয়ে স্থানীয় ইউপি মেম্বার ও পাঁচকমলাপুর পুলিশ ক্যাম্পের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাকে উদ্ধার করে পুলিশ ক্যাম্পে নিয়ে যায়। ওই রাতেই তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। এর পর দোষী প্রমাণিত না হওয়ায় স্থানীয় ইউপি সদস্য শিপন আলী ও ফকির আলীর কাছে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়।

এদিকে এ লজ্জা সহ্য করতে না পেরে শুকুর আলী শুক্রবার দিবাগত রাতে সদর উপজেলার মোমিনপুর রেল স্টেশনের অদূরে ট্রেনে মাথা দিয়ে আত্মহত্যা করে। এলাকাবাসী সকালে মরদেহ দেখে পোড়াদহ পুলিশ ফাঁড়িতে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

আলমডাঙ্গা উপজেলার খাদিমপুর ইউপি সদস্য শিপন আলী জানান, স্থানীয় যুবকরা ছাগল চুরির অপবাদে শুকুর আলীকে ধরে নিয়ে আসার খবর আমাকে মুঠোফোনে জানায়। এরপর আমি স্থানীয় পাঁচকমলাপুর পুলিশ ক্যাম্পে খবর দিই। খবর পেয়ে সহকারী দারোগা আসাদ আলী ও আমি ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে যুবকদের কাছ থেকে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে পুলিশ ক্যাম্পে নিয়ে যাই।

পাঁচকমলাপুর পুলিশ ক্যাম্পের সহকারী দারোগা আসাদ আলী জানান, মাঝহাটি গ্রামে একজন ছাগলচোরকে স্থানীয় যুবকরা আটকে রেখেছে এ খবর স্থানীয় মেম্বার শিপন আমাকে মুঠোফোনে জানালে আমি ঘটনাস্থল থেকে শুকুর আলীকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে দোষী সাব্যস্থ না হওয়ায় স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ মেম্বারদের হাতে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেই। শুকুর আলী এ ঘটনার কারণে আত্মহত্যা করেছে কি-না তা আমার জানা নেই।

সদর উপজেলার মোমিনপুর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক জোয়ার্দ্দার জানান, রাতে খুলনা থেকে ঢাকা বা রাজশাহীগামী কোনো একটি ট্রেনে কাটা পড়ে শুকুর আলী মারা যেতে পারেন। স্থানীয় বাসিন্দারাও এমনই তথ্য দিয়েছেন।

 

Developed by :