Wednesday, 12 August, 2020 খ্রীষ্টাব্দ | ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |




বাঁশের সাঁকো পেয়ে খুশি নদীপাড়ের মানুষ, তবে …

নেত্রকোনা: নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া এবং পাশের জেলা কিশোরগঞ্জের তাড়াইল উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকায় সূতি নদীর ওপর নির্মিত বাঁশের সাঁকোটি অবশেষে উদ্বোধন করা হয়েছে।

বুধবার (৩ জুলাই) বিকেলে দুই উপজেলার প্রশাসনের কর্মকর্তারা আনুষ্ঠানিকভাবে এ সাঁকোর উদ্বোধন করেন। এতে সাময়িকভাবে যাতায়াতে সুবিধা হওয়ায় নদীপাড়ের দুই উপজেলার মানুষ খুশি। তবে এখানে স্থায়ীভাবে কবে একটি পাকা সেতু নির্মাণ করা হবে এ আশায় বুক বেধে আছেন এলাকাবাসী।

জানা গেছে, ওই নদীর ওপর কোনো সেতু না থাকায় নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার মোজাফরপুর এবং কিশোরগঞ্জের তাড়াইল উপজেলার রাউতি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের মানুষের যাতায়াত এবং উৎপাদিত পণ্য পরিবহনের ক্ষেত্রে খুবই সমস্যায় পড়তে হতো। এ অবস্থায় ইজিপিপি প্রকল্পের আওতায় কেন্দুয়া উপজেলার মোজাফরপুর ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে দুই ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী গগডা ও নগুয়া-দাউদপুর এলাকায় প্রায় ২০০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ১০ ফুট প্রস্তের বাঁশের সাঁকোটি নির্মাণ করা হয়।

এতে সাময়িকভাবে দুই উপজেলার মানুষের যাতায়াতে ভোগান্তি অনেক কমবে বলে স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিরা আশাবাদী। তবে সাঁকোর পরিবর্তে এখানে স্থায়ীভাবে একটি পাকা সেতু নির্মাণের প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নজরে আনা হবে বলেও স্থানীয় প্রশাসন ও পরিষদের পক্ষ থেকে এলাকাবাসীকে আশ্বস্ত করা হয়।

এদিকে নবনির্মিত সাঁকোর দুইদিকে ফিতা কেটে বুধবার বিকেলে কেন্দুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আল-ইমরান রুহুল ইসলাম এবং তাড়াইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তারেক মাহমুদ আনুষ্ঠানিকভাবে সাঁকোটির উদ্বোধন করেন।

এ সময় অন্যদের মধ্যে কেন্দুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নুরুল ইসলাম, ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর চৌধুরী, শরীফ উদ্দিন জুয়েল, কেন্দুয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলামসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

 

Developed by :