Saturday, 17 August, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ২ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




খুলে দেখেননি রেলের ডিজি!

বরমচালে ট্রেন দুর্ঘটনা: অবশেষে প্রতিবেদন জমা দিলো তদন্ত কমিটি

মৌলভীবাজার: কুলাউড়া উপজেলার বরমচালে সংঘটিত ট্রেন দুর্ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন সোমবার সকালে বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক (ডিজি) কাজী মো. রফিকুল আলমের দপ্তরে এসে জমা হয়েছে। তবে বিকাল পর্যন্ত প্রতিবেদনটি তিনি খুলে দেখেননি বলে জানিয়েছেন।

গত ২৩ জুন কুলাউড়ার বরমচলে ঢাকাগামী উপবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি একটি সেতুর ওপর দুর্ঘটনায় পড়ে। এতে চারজন নিহত হন। আহত হন আরো ৬৪ জন। ঘটনার পরদিন পূর্বাঞ্চল রেলওয়ের প্রধান যান্ত্রিক প্রকৌশলী মিজানুর রহমানকে আহ্বায়ক করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে রেলওয়ে। ওই কমিটিকে তিনদিনের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়। এ হিসাবে প্রতিবেদন জমা দেয়ার কথা ছিল গত ২৬ জুন। তবে নির্ধারিত সময়ের পাঁচদিন পর রেলভবনে এসে জমা পড়ল প্রতিবেদনটি।

প্রতিবেদন সম্পর্কে জানতে রেলওয়ের ডিজির দপ্তরে যোগাযোগ করা হয়। ডিজি কাজী মো. রফিকুল আলম এ সময় বলেন, তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন আমাদের হাতে এসেছে। তবে আমি এখনো সেটি খুলে দেখিনি। তাই বিস্তারিত কিছু বলতে পারছি না। বুধবার রেলপথমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন প্রতিবেদনসহ আনুষঙ্গিক বিষয়গুলো নিয়ে সাংবাদিকদের বিস্তারিত জানাবেন। এর বেশি আমি আর কিছু বলতে পারছি না।

দুর্ঘটনার কারণ সম্পর্কে রেলওয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, সেতুর কারণে দুর্ঘটনাটি ঘটেনি। সেতুর কয়েকশ মিটার আগেই ট্রেনটি লাইনচ্যুত হয়। ওই অবস্থায়ই ট্রেনটি প্রায় সেতু পার হয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু শেষ বগিটি আর পার হতে পারেনি।

দুর্ঘটনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন রেলপথমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন ও বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক কাজী মো. রফিকুল আলম। রেলওয়ের পক্ষ থেকে নিহতদের ১ লাখ ও আহতদের ১০ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা দেয়া হয়েছে।

 

Developed by :