Sunday, 21 July, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




নাজমুলের কুশপুত্তলিকা দাহ, গ্রেফতারের দাবি

কাপাসিয়া: বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ ও তার পরিবার সম্পর্কে ফেসবুকে আপত্তিকর মন্তব্য করায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আলম সিদ্দিকীর কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, নিখোঁজ ভাগ্নেকে উদ্ধারে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তানজিম আহমেদ সোহেল তাজের ফেসবুক লাইভকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। ওই স্ট্যাটাসে ছাত্রলীগের সাবেক এই সাধারণ সম্পাদক লিখেছেন-



‘সোহেল তাজ চাইলে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে পারেন। তার আপন বোন সিমিন হোসেন রিমিও বর্তমানে এমপি। সংসদ অধিবেশনেও যাচ্ছেন। চাইলেই প্রধানমন্ত্রী কিংবা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে পারেন। কিন্তু ফেসবুক লাইভে বার বার এসে কেন এসব করছেন বুঝতে পারছি না।’

এছাড়া সোহেল তাজের পারিবারিক ইতিহাস তুলে নাজমুল লিখেছেন, আমার খুব জানতে ইচ্ছে করে এবং ওনাদের সমস্যাটা কী বুঝতে পারছি না। নিজে পদত্যাগ করলেন। ওনার বাবা তাজউদ্দীন আহমেদও বঙ্গবন্ধুর মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেছিলেন। তার চাচা আফসার উদ্দিনও শেখ হাসিনার মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেছিলেন। ওনার মা জোহরা তাজউদ্দীনও গণফোরামের যাই যাই করছিলেন। এবং শারমিন আহমেদও বঙ্গবন্ধুকে বিতর্কিত করে বই লিখেছেন। সিমিন হোসেন রিমি এমপিও প্রথম আলোতে এই রকম অনেক কলাম লিখেছেন। অথচ বঙ্গবন্ধু কন্যা ওনাদেরকে সবসময়ও সম্মান করে যাচ্ছেন।’



নাজমুলের এমন স্ট্যাটাসের প্রতিবাদে শুক্রবার সন্ধ্যায় কাপাসিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, সেচ্ছা সেবক লীগ যৌথ উদ্যোগে প্রতিবাদ সভা, বিক্ষোভ মিছিল করে। মিছিল শেষে নাজমুলের কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়।

উপজেলা আওয়ামীলীগ অফিস থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়ে উপজেলা সদরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। পরে পুরাতন বাসষ্ট্যান্ড মোড়ে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন কাপাসিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক এমপি আলহাজ্ব মুহম্মদ শহীদুল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান প্রধান, যুবলীগের সভাপতি মাহবুব উদ্দিন আহমদ সেলিম, সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন প্রধান, ছাত্রলীগ সভাপতি আব্দুল কাউয়ুম ভুঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক রাসেদুল আলম সৈকত, সেচ্চাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রউফ দরজী, সাংগঠনিক সম্পাদক পারভেজ রানা, কাপাসিয়া কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদল হাসান মামুন প্রমূখ।



প্রতিবাদ সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছাত্র রাজনীতির কুলাঙ্গার নাজমুল আলম সিদ্দিকী স্বাধীনতার কারিগর বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী কাপাসিয়ার সূর্যসন্তান বঙ্গতাজ তাজউদ্দীন আহমদ ও তার সহধর্মিনী আওয়ামীলীগের দুঃসময়ের কান্ডারী সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দীন, ছোট ভাই সাবেক মন্ত্রী আফসার উদ্দীন আহমদ, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ ও কাপাসিয়ার বর্তমান সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমি‘র বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে আপত্তিকর মন্তব্য করেছে তা ক্ষমার অযোগ্য।



এ মন্তব্য করে কাপাসিয়া সহ দেশব্যাপী মানুষের মনে চরম আঘাত দিয়েছে। নেতৃবৃন্দ তার এ মন্তব্যের কারনে নাজমুলের গ্রেফতার ও শাস্তি দাবি করেছেন।




























 





সর্বশেষ সংবাদ

Developed by :