Monday, 17 June, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৩ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




বৃষ্টির মধ্যেও শাহী ঈদগাহ ময়দানে ঈদ জামাতে মুসল্লীদের ঢল

ছবি: এস এম সুজন

সিলেট: সকাল থেকেই থেমে থেমে  বৃষ্টি ছিল সিলেটের আকাশে। সেকারনে ময়দানে ঈদের নামাজ নিয়ে অনিশ্চয়তা বিরাজ করেছিল।  গুড়ি গুড়ি হালকা বৃষ্টির কারনে ঐতিহাসিক শাহী ঈদগাহ ময়দানে সিলেটে ঈদের প্রধান জামাতে শরিক হওয়ার আকাংখা ভেস্তে যায় অনেকের। কিন্তু তারপরও থেমে থাকেনি ঈদগাহ ময়দানমুখী মানুষের ঢল। কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা সহ ঈদ জামাতের সার্বিক প্রস্তুতি আগেভাগে গ্রহন করেছিলেন সংশ্লিষ্টরা।

নামাজকে ঘিরে শাহী ঈদগাহ এলাকায় তিনস্তরের নিরাপত্তা ব্যুহ গড়ে তুলে র‌্যাব ও পুলিশ। শাহী ঈদগাহে প্রবেশের দক্ষিণ ও উত্তর গেটে মুসল্লীদের তল্লাশি করে ভেতরে ঢুকতে দেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। নামাজে আসা মুসল্লীদের শুধুমাত্র জায়নামাজ নিয়ে ভেতরে ঢুকতে দেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

বৈরী আবহাওয়ার কারনে নামাজে অংশ নিতে আসা মুসল্লীরা ছাতা হাতে নিয়ে শাহী ঈদগাহে নিয়ে হাজির হন।  পূর্ব নির্ধারিত বুধবার (৫ জুন) সকাল সাড়ে ৮টার ঈদ জামাতে নামাজ আদায় করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন, সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, বাংলাদেশ আ্ওয়ামীলীগের কেন্দ্রিয় নেতা, সিলেট সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, বর্তমান  মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, মহানগর আ্ওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ সহ জন প্রতিনিধি, রাজনীতিবিদ ও প্রশাসনের শীর্ষ ব্যক্তিরা অংশ গ্রহণ করেন।

নামাজের পূর্ব মুসল্লীদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, মোতায়াল্লী মকবুল বক্ত। নামাজে ইমামতি করেন সিলেটের বন্দর বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা কামাল উদ্দিন। এর আগে বয়ান করেন হযরত মাওলানা শায়খে বরুণী সৈয়দুর রহমান হাবিবী।

সবুজে ঘেরা টিলায় অবস্থিত প্রাচীনতম এই ঈদগাহের মূল মিম্বর। তারপর সিড়িতে ধাপে ধাপে সাজিয়ে বিরাটকায় হয়েছে এই ঈদগাহ ময়দান। নামাজে আগত মুসল্লীদের সারি পার্শ্ববর্তী রাস্তায় ছড়িয়ে পড়ে। সপ্তদশ শতাব্দীতে নির্মিত প্রাচীন ঐতিহ্যের নিদর্শন শাহী ঈদগাহের জামাতে শরিক হতে প্রত্যন্ত অঞ্চল থেক্ওে ধর্মপ্রাণ মুসল্লীরা ছুটে আসেন। বৈরী আবহাওয়া স্বত্ত্বেও  এবারও  ব্যতয় হয়নি মুসল্লীদের প্রত্যাশিত উপস্থিতি। শাহী ঈদগাহে ঈদের জামাতের পাশাপাশি একই সময় ঈদ জামাত অনুষ্টিত হয়  বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের জামে মসজিদ, সিলেট সরকারি আলিয়া মাদরাসা মাঠ এবং সকাল ৯টায় হযরত শাহজালাল (রহ.) দরগাহ মসজিদ, হযরত শাহপরাণ (রহ.) দরগাহ মসজিদ, বরইকান্দি শাহী ঈদগাহ ময়দান, সিলেট সদর উপজেলার সাহেববাজার শাহী ঈদগাহে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এদিকে সিলেট নগরীর বন্দরবাজারস্থ কুদরত উল্লাহ জামে মসজিদে তিনটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এসব জামাত সকাল সাড়ে ৭টা, সাড়ে ৮টা ও সাড়ে ৯টায় অনুষ্ঠিত হয়। কোর্টপয়েন্টস্থ কালেক্টরেট জামে মসজিদে সকাল ৮টায়, কাজিরবাজার মাদরাসায় সকাল সাড়ে ৭টায়, শেখঘাটস্থ শেখ ছানা উল্লাহ জামে মসজিদে সকাল ৮টায়, কালিঘাটস্থ নবাবী মসজিদে সকাল ৮টায়, মাছিমপুরস্থ শেখ মৌলভী ওয়াকফ এস্টেট মসজিদে সকাল ৮টায়, খাসদবির মাদরাসা মাঠে প্রথম জামাত সকাল সাড়ে ৭টায় ও দ্বিতীয় জামাত সকাল ৮টায় অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়া পাঠানটুলা নবাবী শাহী ঈদগাহে সকাল ৮টায়, পশ্চিম পীরমহল্লায় সকাল ৮টায়, ভার্থখলা জামে মসজিদে সকাল ৮টায়, দক্ষিণ সুরমার সিলাম শাহী ঈদগাহে সকাল ৭টায় ও সকাল ৮টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

 

Developed by :