Saturday, 16 November, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




বিয়ানীবাজার সড়কের পাঁচমাইল যেন খেতের আইল

সাত্তার আজাদ:: সিলেট-বিয়ানীবাজার সড়কের পাঁচমাইল নামক স্থানটি যেন খেতের আইলের চেয়ে খারাপ। দেখলে মনে হবে ভাদ্রমাসের চষা জমি। এ যেন অপেক্ষা শুধু ধান রোপণের। কিন্তু কেন এই অবস্থা। মাত্র এক কিলোমিটার ক্ষতিগ্রস্ত এ রাস্তার জন্য কষ্টে হাজার হাজার মানুষ। এ দুর্ভোগের জন্য দায় কার। গত বছর থেকে সেখানে এমন অবস্থা বিরাজ করছে। পিচ তুলে ফেলায় বৃষ্টির আগে ছিল বড় বড় গর্ত। পাথর ছাড়া রাস্তার মাটি দেবে গিয়ে যান চলত নৌকার মত হেলেদুলে। কখনো গর্তে যান আটকা পড়ে যানজন লাগত ঘন্টার পর ঘন্টা। আর বৃষ্টি হবার পর মাটি গলে পানি জমে দইকাদা অবস্থা সেখানে। যান চলাচল দুরূহ; হাঁটা চলাও দুর্বিসহ।
সিলেট-বিয়ানীবাজার সড়কের গোলাপগঞ্জ উপজেলার পাঁচমাইল থেকে নতুন জামে মসজিদ পর্যন্ত প্রায় ১ কিলোমিটার সড়কে গর্ত ও কাদায় সেখানে চষা জমি হয়ে আছে। পূর্ব সিলেটের গোলাপগঞ্জ, বিয়ানীবাজার, কানাইঘাট, জকিগঞ্জ, বড়লেখাসহ মোট ৫টি উপজেলার কয়েক লাখ মানুষ এই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করে। গত বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি এ সড়কের সংস্কারে কাজ শুরু হয়। প্রথমে দ্রুত গতিতে শেষ হলেও গোলাপগঞ্জ উপজেলার পাঁচমাইল থেকে নতুন জামে মসজিদ পর্যন্ত প্রায় ১কিলোমিটার রাস্তা খুঁড়ে পিচ পাথর সরিয়ে মাটি বের করে রাখা হয়।
৬৫ কিলোমিটারের এই সড়কের কাজের বাজেট ১৮৬ কোটি টাকা ব্যয় ধরে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কাজটি দেওয়া হয়। ঠিকাদার কেন এই পাঁচমাইলে ফেলুডা দিয়ে মাটি খুঁড়ে রাস্তা জমির মত চষে রাখলেন? কেন সেখানে পাথর ফেলা বা বালু ফেলা হচ্ছে না। নাকি মানুষকে দুর্ভোগে ফেলে বিকৃত মানসিকতার মত কষ্ট দেখে মজা লুটছেন তিনি- এমন প্রশ্ন সাধারণ মানুষের।

 

Developed by :