Tuesday, 10 December, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




কাদেরকেই পার্টির চেয়ারম্যান করবেন এরশাদ!

ছোট ভাই জিএম কাদেরকে আপাতত অপেক্ষা করতে বললেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ। এরশাদ জিএম কাদেরকে আশ্বস্ত করে বললেন, ‘অপেক্ষা কর সব ঠিক হয়ে যাবে।’ যদিও এর প্রত্যুত্তরে জিএম কাদের কোন মন্তব্য করেননি ।

গেল সপ্তাহে জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান এবং জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় উপনেতার পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয় জিএম কাদেরকে। দলীয় ব্যর্থতার অভিযোগে পার্টি চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ ছোট ভাইকে এ দুটি পদ থেকে সরিয়ে দেন। এনিয়ে জিএম কাদের এখনো কোন মুখ খোলেননি। তবে জিএম কাদেরের শুভাকাঙ্খীরা বলছেন, জিএম কাদেরের প্রতি যে অবিচার করা হয়েছে তা পার্টির জন্য মঙ্গলজনক নয়। কারণ হিসেবে তারা বলছেন, জাতীয় পার্টির রাজনীতিতে জিএম কাদের একমাত্র ক্লিন ইমেজের রাজনীতিবীদ। আওয়ামী লীগ সরকারের বাণিজ্যমন্ত্রী থাকাকালে বেশ সুনাম কুড়িয়েছেন জাপার সিনিয়র এ নেতা। জাতীয় পার্টির ভেতরেও তার গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। জাপা চেয়ারম্যানের অনুপস্থিতিতে জিএম কাদেরই ছিলেন জাপার ভরসা। কিন্তু একটি কুচক্রীমহল জিএম কাদেরের রাজনৈতিক উত্থানে প্রতিহিংসাপরায়ন হয়ে ওঠে।

জাপার একাধিক নেতা বাংলা ইনসাইডারকে বলেন, জাতীয় পার্টিতে শেষ কথা বলে কিছু নেই। পার্টির জন্মের পর থেকে অদ্যাবধি যা হয়েছে তা অবাক করার মত কিছুই হয়নি। পার্টি চেয়ারম্যান যা করেন তা তিনি নিজের স্বার্থেই করেন। নিজের স্বার্থ ঠিক রাখতে পার্টিকে বলি দিতে কিংবা নেতাদের কুরবানী দিতে কখনোই তিনি কুণ্ঠাবোধ করেন না। দেশের ইতিহাসে কোন রাজনৈতিক দলের অভ্যন্তরে এমন উত্থান-পতনের ঘটনা ঘটেনি। তাদের দাবী, এখন যা কিছুই হচ্ছে ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য হচ্ছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে জাপার এক প্রেসিডিয়াম সদস্য বলেন, জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় থাকাবস্থায় স্যার (এরশাদ) রাতে দিনে যেভাবে মন্ত্রী বদল করেছেন এখনও তিনি সে কাজটিই করে যাচ্ছেন। তার মতে, এটি তার একটি চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য। জাপার প্রেসিডিয়াম ঐ সদস্য দৃঢ়তার সাথে বলেন, ‘অপেক্ষা করেন দেখেন স্যার (এরশাদ) এই জিএম কাদেরকেই পার্টির চেয়ারম্যান করবেন!’

বাংলা ইনসাইডার

 

Developed by :