Monday, 26 September, 2022 খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |




কামালের সম্মতিতেই সংসদে মনসুর

বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম।।

গতকাল শপথ নিয়েছেন সুলতান মোহাম্মদ মনসুর। শপথ নেওয়ার ছয় ঘন্টার মধ্যেই তাকে গণফোরাম থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।

গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু এক সংবাদ সম্মেলন করে বলেছেন, দল থেকে তাকে বহিস্কার করা হলো। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটি থেকেও বাদ দেওয়া হলো। কিন্তু সুলতান মনসুরের বহিস্কারাদেশ, প্রতিক্রিয়া এবং ড. কামাল হোসেনের ভূমিকা নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে।



সুলতান মোহাম্মদ মনসুরের শপথ গ্রহণ, সংসদে যোগদান ইত্যাদি পুরো বিষয়ে ড. কামাল হোসেন এখন পর্যন্ত কোন মন্তব্য করেননি। বরং সুলতান মোহাম্মদ মনসুর বলেছেন, ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতার সঙ্গে আলাপ করেই তিনি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।



বিএনপির একাধিক নেতা ড. কামাল হোসেনের কাছে এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি কোন কথা বলেননি। তাহলে কি ড. কামাল হোসেনের সম্মতির ভিত্তিতেই সুলতান মোহাম্মদ মনসুর শপথ নিয়েছেন? এই প্রশ্ন আরো জোরালো হয়েছে যখন সুলতান মোহাম্মদ মনসুরের বহিস্কারাদেশের সংবাদ সম্মেলনে মোস্তফা মহসীন মন্টু যখন বক্তব্য রেখেছেন, কামাল হোসেন সেখানে উপস্থিত ছিলেন না।



গণফোরামের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দলের সিদ্ধান্ত নিতে হলে, সভাপতির নেতৃত্বে কার্যকরী কমিটিতে বহিস্কারাদেশ করতে হয় এবং বহিস্কারাদেশের আগে ওই ব্যাক্তিতে আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য শোকজ নোটিশ দিতে হয়। সুলতান মোহাম্মদ মনসুরকে তেমন কিছুও দেওয়া হয়নি।



যদিও সুলতান মোহাম্মদ মনসুর বলেছেন, তিনি গণফোরামের কোন সদস্য নন। তিনি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য মাত্র। এমনকি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটি থেকেও যে তাকে বাদ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন মন্টু। সেই ঘোষণাটাও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের কোন মিটিংয়ে গৃহীত হয়নি।



তাহলে সুলতান মোহাম্মদ মনসুরকে বহিস্কার করলো কে? তাকে স্টিয়ারিং কমিটি থেকেও বাদ দিলো কে? এ ব্যাপারে ড. কামাল হোসেন এখনো নিশ্চুপ রয়েছেন। জানা গেছে, ড. কামাল হোসেনের সম্মতির কারণেই সুলতান মনসুর সংসদে গিয়েছেন। এজন্যই ড. কামাল হোসেন কোন বক্তব্য রাখছেন না। -বাংলা ইনসাইডার

 



























 

Developed by :