Monday, 3 October, 2022 খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |




ভারতীয় বিমান বাহিনীকে স্যালুট শচীন-শেবাগদের



স্পোর্টস ডেস্ক
।।

কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সন্ত্রাসী হামলায় ৪৫জন ভারতীয় সিআরপিএফ সদস্য নিহত হওয়ার ১৩ দিনের মাথায় পাল্টা জবাব দিয়েছে ভারত। তাদের দাবি, আজ (মঙ্গলবার) ভোরে ভারতীয় বিমানবাহিনী পাকিস্তানি নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে জয়েশ-ই মোহাম্মদ, হিজবুল্লাহ মোজাহেদীন এবং লস্কর-ই তাইয়েবার স্থাপনায় হামলা চালিয়েছে। এই হামলায় ৩০০জন জঙ্গি নিহত হয়েছে বলে ভারতের দাবি।



ভোরের আলো ফোটার আগেই ভারতীয় বিমান বাহিনীর এই হামলার খবর ছড়িয়ে পড়ে পুরো ভারতে। সারা ভারতেই বয়ে যায় উল্লাসের ঢেউ। সবার মুখেই ঘুরতে থাকে, ‘জয় হিন্দ’। এমনকি অনেকেই একে দ্বিতীয় সার্জিক্যাল স্ট্রাইক বলতেও কুণ্ঠাবোধ করছেন না। যার ধারাবাহিকতায় ভারতের ক্রিকেটাঙ্গনেও বইছে খুশির হাওয়া।



নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে কাশ্মীরে ভারতীয় বিমান বাহিনী হামলা চালানোর পর টুইটারে নিজেদের সন্তুষ্টি এবং অভিনন্দনের বার্তা প্রকাশ করেন সাবেক ক্রিকেটার এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের মালিক শচীন টেন্ডুলকার। ভারতীয় বিমান বাহিনীকে তাৎক্ষনিক অভিনন্দন জানিয়েছেন সাবেক ওপেনার বিরেন্দর শেবাগ, গৌতম গম্ভীর থেকে শুরু করে সুরেশ রায়না, শিখর ধাওয়ান, মোহাম্মদ কাইফ, ইউযবেন্দ্র চাহাল এমনকি ব্যাডমিন্টন তারকা সাইনা নেওয়ালও।



পুলওয়ামায় সন্ত্রাসী হামলার পর বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ বয়কট করার দাবি ওঠে ভারতের ভেতর থেকে। যেখানে যোগ দেন সৌরভ গাঙ্গুলিসহ অনেকেই। কিন্তু শচীন টেন্ডুলকার ছিলেন খেলার পক্ষে। তিনি জানিয়েছিলেন, ‘আমরা এমনি এমনি ২ পয়েন্ট ছেড়ে দেবো কেনো। বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে হারিয়েই প্রতিশোধ নেবো।’

Sachin-sehwagh

কিন্তু পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে ভারতীয় বিমান বাহিনী হামলা চালানোর পর টুইটারে সবার আগে অভিনন্দন বার্তাটা দিলেন শচীনই। তিনি টুইটারে লেখেন, ‘আমাদের ভালোমানুষিকে কখনোই দুর্বলতা মনে করা উচিত নয়। ভারতীয় বিমানবাহিনীকে স্যালুট। জয় হিন্দ।’



শচীনের সতীর্থ, বিশ্বকাপজয়ী ওপেনার বিরেন্দর শেবাগ একটু রসিকতা করতেই যেন ভালোবাসেন। টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘ছেলেরা সত্যিই দারুণ খেলেছে।’ তবে তিনি হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করেছেন, সেখানে লেখেন- শুধর যাও ওয়ারনা শুধার দেঙ্গে, এয়ারস্ট্রাইক।



পুলওয়ামায় কামলার পর পাকিস্তানের বিপক্ষে যুদ্ধের আহ্বান সবার আগে জানিয়েছিলেন গৌতম গম্ভীর। তিনি বলেছিলেন, যুদ্ধের ময়দানে কথা বলতে হবে। এবার ভারতীয় বিমান বাহিনীর হামলার পর গম্ভীর লিখেন, ‘জয় হিন্দ, আইএএফ’।



ক্রিকেটার ইয়ুজবেন্দ্র চাহাল ভারতীয় বিমান বাহিনীর এই হামলার পর টুইটারে লেখেন, ‘কড়া প্রত্যাঘাত, এই আঘাত অনেকদিন মনে রাখবে ওরা (বহুত হার্ড, বহুত হার্ড)’। টুইটারে ব্যাডমিন্টন তারকা সাইনা নেওয়াল লিখেছেন, ‘ভারত এবার নিজের শক্তি দেখিয়ে দিল। ভারতীয় সৈনিকদের স্যালুট।’



ভারতের বর্তমান জাতীয় দলের ওপেনার শিখর ধাওয়ানও থেমে থাকেননি। তিনি টুইট করেন, ‘ভারতীয় বিমানবাহিনী সময়মতো যে সাহস ও শৌর্য দেখিয়েছে সে জন্য তাদের স্যালুট।’



এখনও জাতীয় দল থেকে অবসর নেননি। যদিও ডাক পান না। সেই সুরেশ রায়না টুইটারে লিখেছেন, ‘এই প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্যে অসাধারণ সাহস দেখানোর জন্য ভারতীয় বিমানবাহিনীকে স্যালুট জানাই। কাপুরুষদের প্রতি দুর্দান্ত জবাব।’



আজিঙ্কা রাহানে টুইট করেন, ‘ভারতীয় সেনাবাহিনীর চমৎকার কাজ। সন্ত্রাসের বিপক্ষে তারা ভীষণ প্রয়োজনীয় বার্তা পাঠিয়েছে।’ সাবেক ক্রিকেটার মোহাম্মদ কাইফ লিখেছেন, ‘ইন্ডিয়ার এয়ারফোর্সকে স্যালুট। শানদার ইন্ডিয়ান এয়ারস্ট্রাইক।’

 



 


















 










 

Developed by :