Wednesday, 28 September, 2022 খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |




একসঙ্গে চার বন্ধু আগুনে পুড়ে ছাই

বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম।।

চকবাজারের বহুতল ভবনের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এখন পর্যন্ত বহু হতাহতের খবর পাওয়া যাচ্ছে। এর মধ্যে একসঙ্গে চার ব্যবসায়ী বন্ধুর প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে।

নিহতরা হলেন- মঞ্জু, হিরা, আনোয়ার ও নাসির। তাদের বয়স আনুমানিক ৩৫-৪০ বছরের মধ্যে। তারা ওই এলাকার ব্যবসায়ী ছিলেন।

 



মঞ্জুর ভাই মো. লিটন জানান, যে ভবনে আগুনের সূত্রপাত তার বিপরীতে হায়দার মেডিকো ফার্মেসিতে ওই চার বন্ধু কাজ শেষে প্রতিদিন আড্ডা দিতেন। বুধবার রাত ৯টার দিকে চার বন্ধু মঞ্জু, হিরা, আনোয়ার ও নাসির আড্ডা দিচ্ছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে, আগুন লাগার সময় তারা বোমা বিস্ফোরণ ভেবে ভয়ে ভেতর থেকে সাঁটার লাগিয়ে দেয়। এরপর আর বেরোতে পারেননি।

 



রাত তিনটার দিকে তাদের খোঁজাখুঁজি শুরু করলে অঙ্গার দেহ পাওয়া যায়।

ফায়ার সার্ভিস তাদের মরদেহ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

 



বুধবার রাত ১০টার দিকে এ আগুন লাগে। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসেনি। ফায়ার সার্ভিসের পাশাপাশি কাজ করছে বিমানবাহিনীর চারটি হেলিকপ্টার।

 



ঘটনাস্থলে উপস্থিত পুলিশের ডিআইজি মফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ধারণা করা হচ্ছে ভবনের সামনে দিয়ে যাওয়া একটি প্রাইভেটকারের সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়ে ওই ভবনের নিচ তলায় থাকা কেমিক্যাল গুদামে আগুন লাগে।

 



এ ঘটনা আহত হয়েছেন আরও অর্ধশত। তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও মিটফোর্ড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নন্দকুমার দত্ত সড়কের চুরিহাট্টা মসজিদ গলির রাজ্জাক ভবন থেকে আগুনের সূত্রপাত হয় বলে জানা যায়। আগুন লাগার অল্প কিছুক্ষণের মধ্যে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছলেও সরু গলি হওয়ায় ভবনের কাছে যেতে সক্ষম হয়নি। ফলে রাত সাড়ে ১২টার পর পাশের আরও প্রায় চারটি ভবনে আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

 



ফায়ার সার্ভিস জানায়, চকবাজার থানার সামনে গাড়ি রেখে সেখান থেকেই পাইপের মাধ্যমে পানি নেওয়া হয়। এ ছাড়া আশপাশের ভবনের পানির ট্যাংক থেকেও পানি সংগ্রহ করে ফায়ার সার্ভিস। রাত ৩টায় আগুন অনেকটা নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়।

 



এদিকে আগুন লাগার পর চকবাজার এলাকার গ্যাসলাইন থেকেও ওই সময় আগুন বের হচ্ছিল। এ সময় ওই এলাকার বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

 

 


















 

Developed by :