Saturday, 1 October, 2022 খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |




তাহিরপুরে বাঁধ নির্মাণ প্রকল্প পরিদর্শনে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম, তাহিরপুর।।

 



সুনামগঞ্জের বোরো ফসলক্ষায় বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন বাঁধ নির্মাণ প্রকল্পের কাজ পরিদর্শন করেছেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক।

শুক্রবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে তাহিরপুর উপজেলার মাটিয়ান হাওরে নির্মানাধীন আনন্দ নগর, বোয়াল মারা, বনুয়া বাঁধ পরিদর্শন করেন প্রতিমন্ত্রী।

 



আনন্দ নগর বাঁধ প্রকল্প পরিদর্শনকালে কাজের মান নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, ‘ ফসলক্ষা বাঁধ নির্মাণ প্রকল্পের কাজ ভালভাবে না করলে এক টাকাও বিল পাবেন না। বাঁধ নির্মাণ কাজে অনিয়ম হলে ঘাড় ধরে পানিতে চুবানো হবে।’

এ সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন পানিসম্পদ মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) মুহাম্মদ ইউসূফ, সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ, পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান, তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাইফুল ইসলাম, থানা অফিসার ইনচার্জ নন্দন কান্তি ধর,

 



উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হোসেন খান, সাধারণ সম্পাদক অমল কান্তি কর, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগ আহবায়ক হাফিজ উদ্দিন, যুবলীগ সাবেক যুগ্ম আহবায়ক অনুপম রায়, উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক তানসেন তালুকদার তুষার, ছাত্রলীগ নেতা ধীমান চন্দ, সায়েম তালুকদার, মবিন নূর, রোমান আহমেদ তুষা প্রমুখ।

 



বাঁধ পরিদর্শন শেষে তাহিরপুর উপজেলা পাবলিক লাইব্রেরী মিলনায়তনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক বোরো ফসলরক্ষা বাঁধ নির্মাণ কাজের অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, ‘যারা বাঁধ নির্মাণ কাজের অনিয়ম করবে তাদের কিছুতেই ছাড় দেয়া হবে না। প্রধানমন্ত্রী হাওরের বিষয়ে আন্তরিক। তিনি সব সময় হাওরের মানুষের খোঁজ খবর রাখেন। প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতিবাজদের পছন্দ করেন না।’

 



তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হোসেন খান, জেলা আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক করুনা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আলী মর্তূজা, মোশারফ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক অমল কান্তি কর, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম।

 




























 

Developed by :