Monday, 3 October, 2022 খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |




‘রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে গোটা অঞ্চলকে স্থিতিশীল রেখেছে বাংলাদেশ’

বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম।।

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হাতে নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের জন্য সীমান্ত খুলে দেয়ার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ শুধু তাদের জীবনই বাঁচায়নি, গোটা অঞ্চলকেও স্থিতিশীল রেখেছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

বৃহস্পতিবার জেনেভায় ওআইসির রাষ্ট্রদূত ও প্রতিনিধিদের এক সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।



পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের নিরাপদ ও মর্যাদাপূর্ণ প্রত্যাবাসনসহ তাদের মৌলিক অধিকার ও স্বাধীনতা নিশ্চিত করাটা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সম্মিলিত দায়িত্বের মধ্যে পড়ে।এদিন জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল ব্যাচেলেটের সঙ্গেও বৈঠক করেন তিনি।

শুক্রবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত জাতিসংঘের ‘যৌথভাবে রোহিঙ্গা মানবিক সংকট মোকাবেলা পরিকল্পনা-২০১৯’ প্রকাশের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বুধবার জেনেভায় পৌঁছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।শুক্রবার জাতিসংঘে পরিকল্পনাটি উপস্থাপন করা হবে।



জাতিসংঘের পরিকল্পনাটি উপস্থাপনের একদিন আগে বৃহস্পতিবার ওআইসিভুক্ত দেশগুলোর রাষ্ট্রদূত ও প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন শাহরিয়ার আলম।



সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নিরাপদ ও মর্যাদাপূর্ণ রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে মিয়ানমারে সহায়ক পরিবেশ তৈরির জন্য ওআইসি সদস্যদের কাছ থেকে সমর্থন চেয়েছেন তিনি।



ওআইসিভুক্ত তুরস্ক, সৌদি আরব, মিসর, ইন্দোনেশিয়া, পাকিস্তান, লেবানন, জর্ডান, লিবিয়া, ফিলিস্তিন ও মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূত ও প্রতিনিধিরা জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত হওয়া রোহিঙ্গাদের প্রতি সংহতি পুনর্ব্যক্ত করেছেন। রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ায় বাংলাদেশের প্রশংসা করেন তারা।


























 

Developed by :