Tuesday, 22 October, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৭ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




বানিয়াচং উপজেলা নির্বাচনে আ’লীগের প্রার্থী ইকবাল

বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম, বানিয়াচং।।

আসন্ন বানিয়াচং উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সমর্থন পেলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন খান।


উপজেলা নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় প্রার্থী বাছাইয়ের জন্য উপজেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সভায় তৃণমূল নেতাকর্মীদের অকুণ্ঠ সমর্থন পান তিনি।


সোমবার (২৮জানুয়ারি) সকাল ১১টায় জনাব আলী সরকারি কলেজ মিলনায়তনে এই বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। বর্ধিত সভায় তিনটি পদে প্রার্থীতা ঘোষণা করেন মোট ২২ জন প্রার্থী। প্রার্থীদের মধ্যে সমঝোতা না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত ভোটের মাধ্যমে প্রার্থী বাছাইয়ের সিদ্ধান্ত নেন নেতৃবৃন্দরা।


পরে তৃণমূল নেতাদের অকুণ্ঠ সমর্থন গোপন ব্যালটের মাধ্যমে চেয়ারম্যান পদে তিনজনের প্যানেলের প্রথম হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন খান। তিনি পেয়েছেন ১৬০ ভোট।


দ্বিতীয় হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুব বিষয়ক সম্পাদক আবুল কাশেম চৌধুরী। তিনি পেয়েছেন ১২০ ভোট। ৪৯ ভোট পেয়ে তৃতীয় হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আমির হোসেন মাষ্টার। অপর প্রার্থী এড.মুনতাকিম চৌধুরী পেয়েছেন  মাত্র ২ ভোট।


ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রথম হয়েছেন কাজল চ্যাটার্জি। তিনি পেয়েছেন ১১০ ভোট। দ্বিতীয় হয়েছেন ফারুক আমীন। তিনি পেয়েছেন ৯০ ভোট। ৫২ ভোট পেয়ে তৃতীয় হয়েছেন প্রিয়তোষ রঞ্জন দেব। অপর প্রার্থী কৃষ্ণ দেব পেয়েছেন ৪৮ ভোট। ১৪ ভোট পেয়েছেন আসশাফ চৌধুরী বাবু। আজিজুল হক পেয়েছেন ১২ ভোট। মাত্র ৫ ভোট পেয়েছেন মুহিত মিয়া।


মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে-জাহেনারা আক্তার বিউটি ১৩৭ ভোট পেয়ে প্রথম হয়েছেন । দ্বিতীয় হয়েছেন হাসিনা আক্তার। তিনি পেয়েছেন ১০৯ ভোট। ৪৪ ভোট পেয়ে তৃতীয় হয়েছেন ফেরদৌস আক্তার ঠাকুর। অন্যদিকে রাহেলা হক পেয়েছেন ২১ ভোট। নাসরিন আক্তার মায়া পেয়েছেন ১০ ভোট। ৮ ভোট পেয়েছেন সৈয়দা লিজা আক্তার।


বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট আব্দুল মজিদ খান।


উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আমির হোসেন মাষ্টারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন খানের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন-জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শরীফ উল্লা, শেখ সামছুল হক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লুৎফুর রহমান, প্রচার সম্পাদক অনুপ কুমার দেব মনা, শ্রমবিষয়ক সম্পাদক সজীব আলী, শিল্পবিষয়ক সম্পাদক তজম্মুল হক চৌধুরী,


জেলা কৃষক লীগের সভাপতি হুমায়ুন কবির রেজা, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক এহিয়া চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য হায়দরুজ্জামান ধন মিয়া, এড.আব্দুল মুনতাকিম চৌধুরী, রেজাউল মোহিত খান, জেলা পরিষদ সদস্য রৌশন আরা ভূইয়া লাকী প্রমুখ।


ভোট শেষে ফলাফল ঘোষণা করেন প্রধান অতিথি এডভোকেট আব্দুল মজিদ খান এমপি।

এদিকে বর্ধিত সভাকে ঘিরে সকাল থেকেই তৃণমূল তথা উপজেলা,ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডের নেতাকর্মীরা দল বেঁধে সভাস্থলে এসে হাজির হন। রীতিমতো উৎসবের কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে পরিণত হয় জনাব আলী সরকারি কলেজ মিলনায়তনসহ আশেপাশের এলাকা।


নেতাকর্মীদের চোখে মুখেও ছিল একধরণের উৎকন্ঠার ছাপ। সবার মনে একটাই প্রশ্ন ছিল কে হতে যাচ্ছেন তৃণমূল আওয়ামী লীগের প্রথম পছন্দের প্রার্থী? বর্ধিত সভায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সকল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ও ওয়ার্ড কমিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ তৃণমূলের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

 


















 

Developed by :