Tuesday, 21 May, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




সিলেট-৬: ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী শিল্পপতি ফয়ছল আহমদ চৌধুরী

বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম।। দিনভর নানা নাটকীয়তার পর অবশেষে গভীর রাতে সিলেট-৬ আসনে ঐক্যফ্রন্টের চূড়ান্ত মনোনয়ন পেয়েছেন বিশিষ্ট শিল্পপতি ও জেলা ছাত্রদলের সাবেক আহবায়ক ফয়ছল আহমদ চৌধুরী।

শুক্রবার দিবাগত রাত দু’টায় বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’কে সেলফোনে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন উপজেলা বিএনপির সহ সাধারণ সম্পাদক মো. ছরওয়ার হোসেন। তবে এ বিষয়ে ফয়ছল আহমদের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

জানা যায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সূচনা আলাপে এ আসনে জেলা দক্ষিণ জামায়াতের আমীর মাওলানা হাবিবুর রহমানকে ২০দলীয় জোটের মনোনয়ন নিশ্চিত করা হয়। তিনি অতীতেও জোটের হয়ে নির্বাচন করেছেন। এবারও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠিত হওয়ার পর আলোচনা করে আসনটি জামায়াতকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

কিন্তু শিল্পপতি ফয়ছল আহমদ চৌধুরীর লন্ডন কানেকশন ইস্পাত কঠিন হওয়ায় কেন্দ্রীয় বিএনপি শেষ মুহূর্তে তাকে বেছে নেওয়ার চেষ্টা করে।

তবে জামায়াত পুরনো এ আসনটি ছেড়ে দিতে রাজি নয়। এ কারণে মধ্যরাত পর্যন্ত আসনের ফয়সালা আসেনি। অবশেষে রাত ২টায় চূড়ান্ত ফয়সালা আসে। তথ্য সঠিক হলে ধনকুবের ফয়ছল আহমদ চৌধুরীর ভাগ্যে জুটেছে ধানের শীষ।

রাজনীতি সচেতন ব্যক্তিদের মতে, এ আসনে মহাজোটের প্রার্থী শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপিকে ভোটে টেক্কা দিতে হলে সাবেক ছাত্রনেতা শিল্পপতি ফয়ছল আহমদ চৌধুরীর প্রয়োজন রয়েছে। এখন নাহিদ-ফয়ছল লড়াই দেখতে জনতা উচ্ছ্বসিত হবে।

এদিকে জামায়াতকে স্থানীয় বিএনপি ভালো চোখে দেখছে না বা তাদের সাথে ঐক্য রেখে নির্বাচন করতে তারা রাজিও নয়। এমনকি জামায়াতের হাবিব প্রার্থী হলে নৌকার বিজয় নিশ্চিত হবে। বিএনপি নেতাদের এমন মনোভাব প্রকাশ্যে ফেসবুক লেখনি থেকে বোঝা যাচ্ছে।

সূত্রমতে, গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার উপজেলা নিয়ে গঠিত এ আসনে ২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের প্রার্থী ছিলেন নুরুল ইসলাম নাহিদ এবং বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০দলীয় জোটের প্রার্থী মাওলানা হাবিবুর রহমান এবং স্বতন্ত্র নির্বাচন করেন ড. সৈয়দ মকবুল হোসেন লেচু মিয়া। এ নির্বাচনে জেলা দক্ষিণ জামায়াতের আমীর মাওলানা হাবিবুর রহমানের চেয়ে প্রায় অর্ধলক্ষ ভোট বেশি পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন আওয়ামী লীগের তৎকালীন শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক নুরুল ইসলাম নাহিদ।

এদিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীক পেতে জোর তৎপরতা শুরু করেন জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীম, জাসাসের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ও বিএনপির সদস্য নায়ক হেলাল খান, জেলা ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক ফয়ছল আহমদ চৌধুরী, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান আহমদ চৌধুরী।

এ চারজনের মধ্যে নায়ক হেলাল এবং ফয়ছল চৌধুরী দলীয় মনোনয়ন লাভ করেন। অপরদিকে ঐক্যফ্রন্টের অংশিদারিত্বের কারণে জেলা দক্ষিণ জামায়াতের আমীর মাওলানা হাবিবুর রহমান এবং ইসলামী ঐক্যজোটের এডভোকেট আব্দুর রকিবকেও ধানের শীষ প্রতীক দেওয়া হয়। তারা নির্বাচন অফিসে মনোনয়ন জমা দেন এবং চারজনই বাছাইয়ে টিকেছেন।

আরও পড়ুন

সিলেট-৬: ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হাবিব বদলীয়ে শিল্পপতি ফয়ছলকে দেয়ার চেষ্টা!

 





Developed by :