Tuesday, 25 June, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |




আমার শক্তি, সাহস ও ঔদ্ধ্যত্বের উৎস বঙ্গবন্ধু : পীর হাবিবুর রহমান

নিউইয়র্কে বুদ্ধিদীপ্ত ও উৎসবমুখর পরিবেশে বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’র দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি উদযাপন

ছরওয়ার হোসেন:: গত ১৯ অক্টোবর শুক্রবার সন্ধ্যায় নিউ ইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের প্রসিদ্ব খাবার বাড়ীর পালকি সেন্টারে অনুষ্টিত হলো বাংলাদেশে সিলেটের বিয়ানীবাজার থেকে সাংবাদিক ছাদেক আহমদ আজাদের সম্পাদনায় প্রকাশিত জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’র দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি অনুষ্টান। স্বল্প সময়ের আয়োজনে যা নান্দনিকতায় পূর্ণ ছিলো। ছিলোনা কোন রাজনৈতিক ডামাঢোল। রংচটা বক্তব্যের সমাহার। উপস্থিতি ঘটেছিলো গুণীজনের। সকল বক্তার কন্ঠে ছিলো জ্ঞানের উদ্ভাসন। অনুষ্ঠান পরিণত হয়ে উঠে শৈল্পিক সৃজনশীলতা ও ইতিহাস ঐতিহ্যের প্রদর্শনীর ক্ষেত্ররুপে।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই আয়োজকদের পক্ষ থেকে রচিত স্বাগত বক্তৃতা ‘শুভেচ্ছাবার্তা’ অতিথিবৃন্দ ও উপস্থিতির মধ্যে বিতরণ করা হয়।

নিউ ইয়র্কস্থ বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক (প্রথম মহিলা সম্পাদক), কমিউনিটির সর্বজন শ্রদ্ধেয় প্রিয় মুখ রানা ফেরদৌস চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং সাংস্কৃতিক সংগঠক ও বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’র অন্যতম পরিচালক ছরওয়ার হোসেন’র পরিচালনায় অনুষ্টিত আয়োজনের সকল দৃষ্টি নিপতিত ছিলো প্রধান অতিথি প্রথিতযশা সাংবাদিক, সাহিত্যিক, কলামিষ্ট, টেলিভিশন টকশো উপস্থাপক ও দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন’র নির্বাহী সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমানের উপর। নির্দ্বিধায় সাদাকে সাদা আর কালোকে কালো বলতে পারদর্শীতার গুণে দেশের রাজনৈতিক ভাঙ্গাগড়ার পরিস্থিতিতে তাঁর বক্তব্য শুনতে সকলেই ছিলেন ব্যাকুল। বিষয় ও ভাষার শৈল্পীক উপস্থাপনে তিনি বরাবরের মতোই শ্রোতামন্ডলীকে মুগ্ধ করেছেন।

পীর হাবিবুর রহমান বলেছেন, আমাদেরকে সত্য বলতে হবে, আর সত্য বললে কারো না কারো বিপক্ষে যাবে। সত্য হচ্ছে মুক্তিযুদ্ধ, সত্য হচ্ছে বঙ্গবন্ধু। এটা বললে হয়তো কারো বিপক্ষে যাবে তাতে কিছু যায় আসে না।

তিনি দৃঢ়কন্ঠে বলেন, আমার শক্তির উৎস বঙ্গবন্ধু, সাহস ও ঔদ্ধ্যত্বের উৎসও বঙ্গবন্ধু। তিনি বলেন, যখন পৃথিবীতে ভারতের ইন্দিরা গান্ধি, যুগশ্লাভিয়ার মার্শাল টিটো, ইন্দোনেশিয়ার সুকর্ণ, চিলির সালভাদর আলেন্দে, কিউবার ফিদেল ক্যাস্ট্রো ছিলেন তখনকার সময়ে একজন বিশ্বনন্দিত নেতা ছিলেন বঙ্গবন্ধু। আমাদের দূর্ভাগ্য যে, বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা আমরা আর পাবো না।

পীর হাবিব বলেন, বাংলাদেশে গণতন্ত্র মানেই মুক্তিযুদ্ধ, মুক্তিযুদ্ধ থেকেই স্বাধীনতা আর স্বাধীনতা থেকেই বাংলাদেশ। সেখানে আন্দোলন আর নেতা একটাই তাঁর নাম শেখ মুজিব। তিনি জাতির পিতা। আমরা ব্যথা পাই যখন বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে বিতর্কিত মানুষের ছবি জুড়ানো ব্যানার দেখি।

তিনি বর্তমান সরকারের বিভিন্ন ধরণের যুগান্তকারী উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে বাংলাদেশ উন্নয়নের মহাসড়কে অগ্রসর হচ্ছে এটা সত্য, তবে সুশাসন নিশ্চিত করতে পারলে আজ দেশে স্বাধীনতার পক্ষ বা বিপক্ষ শক্তি বলে কিছু নিয়ে প্রশ্নই উঠতো না।

তিনি বলেন, আড়াইকোটি নতুন ভোটার যারা মুক্তিযুদ্ধের উত্তরাধিকার, যারা যুদ্ধাপরাধীদের বিচারকে অভিষিক্ত করেছে, আবার তারাই কোটা সংস্কার আন্দোলন ও নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনকে ঘিরে ভিবক্ত হয়েছে। যা সরকারের অপরিকল্পীত সিদ্ধান্তের জন্যই সংগঠিত হয়েছে।

সাংবাদিক পীর হাবিব, সরকারের সদ্য প্রণীত ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮’র নানা অসঙ্গতি তুলে ধরে তা সংশোধনের প্রয়োজনীয়তার কথা বলেন।

বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম সম্পর্কে বলেন, আমি প্রায়ই এ পোর্টালের সংবাদ পড়ি। তিনি নিজের ‘পূর্বপশ্চিম’ পরিচালনার অভিজ্ঞতা বর্ণনা করে বলেন, বর্তমান সময়ে নিউজ পোর্টাল পরিচালনা একটি কঠিন কাজ। কারণ, পোর্টালে কেউ বিজ্ঞাপণ দিতে চায়না। তবে একটি সময় আসবে যখন পোর্টালই হবে সংবাদ প্রাপ্তির প্রধান উৎস।

গণমাধ্যমের বর্তমান অবস্থার প্রেক্ষিতে বলেন, একসময় মানুষের হাতে হাতে পত্রিকা থাকতো আর এখন মানুষ মোবাইলে সংবাদ খোজে। গণমাধ্যমের ভবিষ্যত ইন্টারনেট নির্ভর, মানুষ একসময় অনলাইন পোর্টালের উপর ব্যাপকভাবে নির্ভরশীল হয়ে পড়বে। তিনি স্থানীয়ভাবে পোর্টালগুলো পরিচালনায় পৃষ্টপোষকতার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

সাংবাদিকতা ও অনলাইন পোর্টালের উপর জ্ঞানগর্ভ বক্তব্য উপস্থাপণ করেন নিউ ইয়র্ক থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক ঠিকানা’র প্রধান সম্পাদক গুণীজন ফজলুর রহমান।

তিনি বলেন, দু’বছর পাড়ি দেওয়া বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’কে আরো বেশী প্রচারণায় মনোনিবেশ করতে হবে। কেননা, পোর্টালের প্রান হচ্ছে তাঁর প্রচারণা। তিনি সাংবাদিকতার সঙ্গে যোগাযোগের নিবিড় সম্পর্কের গুরুত্ব তুলে ধরে বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’র উত্তোরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করেন।

শুভেচ্ছা বার্তায় আয়োজক বার্তা পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়, ১২ অক্টোবর ২০১৬ বিয়ানীবাজারে অনুষ্ঠিত এক আনন্দঘন অনুষ্ঠানে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী, বিয়ানীবাজারের কৃতিসন্তান নুরুল ইসলাম নাহিদ নিউজ পোর্টাল বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’র উদ্বোধন করেন। প্রতিষ্টালগ্ন থেকে বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম সমকালীন অনুসন্ধানী সংবাদ, ফিচার, নিবন্ধ প্রভৃতি প্রকাশে শতভাগ বস্তুনিষ্টতা বজায় রেখে ও কার্যকর সাংবাদিকতার বৈশিষ্টাবলী ধারণ করার পাশাপাশি শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতির বিকাশ এবং শিক্ষা ও সমাজোন্নয়নমূলক কাজসমূহে প্রেরণাদানকে অগ্রাধিকার প্রদান করে আসছে।

সামাজিক অবক্ষয়রোধে তরুন সমাজকে লেখাপড়ার পাশাপাশি বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চায় উদ্বুদ্ধ করতে প্রণোদনা প্রদানের অংশ হিসেবে বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম তরুণ সমাজকে লেখালেখি অনুশীলন ও চিন্তাশক্তির বিকাশে একটি সহায়ক প্রতিষ্টান হিসেবে উদ্ভাসিত হয়েছে। স্থানীয়, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংবাদের পাশাপাশি বিশ্বময় বিরাজিত বাংলাদেশের অজস্র প্রবাসীদের নানা সমস্যা, আনন্দ-বেদনা ও সাফল্যের খবর প্রকাশে অগ্রাধিকার প্রদান পোর্টালটির অন্যতম বৈশিষ্ঠ্য।

যার মাধ্যমে অতিদ্রুত পোর্টালের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পেয়েছে এবং অনলাইন এ্যাক্টিভিষ্টদের সাথে ঘনিষ্ট সম্পর্ক স্থাপনে ব্যাপক সফলতা অর্জন করেছে। আজ বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম এর ফলোয়ার দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিশ্বময় ব্যাপৃত। যাত্রা পথে পেছনের দিনগুলোর মতো অনাগত দিনসমূহও হোক পুষ্পিত সাফল্যে ভরপুর- এ প্রত্যাশায় প্রতিষ্টার তৃতীয় বর্ষকে স্বাগত জানাচ্ছি। আমরা পোর্টালের যাত্রাপথে দেশ বিদেশের সকল শ্রেণী পেশার পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীদের সহযোগিতা ও পরামর্শের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

বিয়ানীবাজারের শিল্প সাহিত্য সংস্কৃতি চর্চার সমৃদ্ধ ইতিহাসের আলোকে শুভেচ্ছাবার্তায় আরো উল্লেখ করা হয় যে, রত্মগর্ভা পঞ্চখন্ড তথা বিয়ানীবাজার প্রাচীনকাল থেকেই শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতি ও সৃজনশীল সাংবাদিকতা চর্চার উর্বর ভূমি। ১৯৮২সালে প্রতিষ্টিত বিয়ানীবাজার প্রেসক্লাব বাংলাদেশের থানা বা উপজেলা পর্যায়ে প্রতিষ্টিত প্রথম প্রেসক্লাব হিসেবে স্বীকৃত। কালের যাত্রা পথে অনেক জ্ঞানী-গুণী, মানবতাবাদী তাপস, মহীয়সীর জন্মগৌরবে গরবিনী বিয়ানীবাজার আজও সৃজনশীল সাংবাদিকতা ও সাহিত্য-সংস্কৃতি চর্চায় অনন্য উচ্চতায় অধিষ্টিত। সাংবাদিকতায় বিয়ানীবাজারের কৃতি সন্তানেরা আজ দেশে-বিদেশে নেতৃত্বে অধিষ্ঠিত।

বর্তমানে বিয়ানীবাজার থেকে চারটি সাপ্তাহিক (বিয়ানীবাজার বার্তা, আগামী প্রজন্ম, নবদ্বীপ ও দিবালোক) প্রকাশিত হচ্ছে এবং বস্তুনিষ্ট নিউজ পোর্টালের সংখ্যা ছয়টি (নবধহরনধুধৎহবংি২৪.পড়স,নবধহরনধুধৎনধৎঃধ২৪.পড়স, ঢ়ঁৎনড়ংুষযবঃহবংি২৪.পড়স,নবধহরনধুধৎঃরসবং.পড়স,ফরনধষড়শ.পড়স,নবধহরনধুধৎশড়হঃযড়.পড়স)। বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে একটি উপজেলা সদর থেকে এতোগুলো সাপ্তাহিক ও নিউজ পোর্টালের প্রকাশ সত্যিই দুর্লভ। যা আমাদের খ্যাতিমান পূর্বসূরীদের যোগ্য উত্তরাধিকার বহন করছে।

এই মহতী অনুষ্টান থেকে আমরা বিয়ানীবাজার প্রেসক্লাব, বিয়ানীবাজার রিপোর্টার্স ইউনিটি ও বিয়ানীবাজার জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনসহ সকলের প্রতি জানাচ্ছি লাল গোলাপ শুভেচ্ছা। আয়োজকদের পক্ষ থেকে বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’র সকল পরিচালকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করা হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সোসাইটির সভাপতি কামাল আহমদ, জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব আমেরিকা ইনক এর সভাপতি ও বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’র অন্যতম পরিচালক বদরুল খাঁন, সিলেট বিভাগ গণদাবী বাস্তবায়ন পরিষদের সভাপতি ও বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’র অন্যতম পরিচালক আজিমুর রহমান বুরহান, বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সাধারন সম্পাদক আতাউর রহমান সেলিম, সাপ্তাহিক বর্ণমালার সম্পাদক মাহফুজুর রহমান, প্রথম আলোর নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি ইশতিয়াক আহমদ রুপু, যুক্তরাষ্ট্র সফররত সিলেট সিটি কর্পোরেশনের জনপ্রিয় কাউন্সিলর সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ইলিয়াছুর রহমান ইলিয়াছ এবং কাউন্সিলর আওয়ামী লীগনেতা তৌফিক বক্স লিপন, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক হাজী এনাম উদ্দিন আহমদ দুলাল, নিউ ইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি শেখ আতিকুল ইসলাম, সদ্য যুক্তরাষ্ট্র আগত সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি এ্যাডভোকেট রুহুল আহমদ, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি দুরুদ মিয়া রণেল, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক শেখ জামাল হোসেন, সেবুল মিয়া, ইফজাল চৌধুরী ও রিন্টু লাল দাস, বিয়ানীবাজারের শেওলা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান চৌধুরী, জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সাবেক আন্তর্জাতিক সম্পাদক আং মতিন, বাংলাদেশ পরিবেশ নেটওয়ার্ক এর সমন্বয়ক সৈয়দ ফজলুর রহমান, রুপসী বাংলা টিভির প্রতিনিধি শাহ জে চৌধুরী প্রমূখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রধান অতিথি পীর হাবিবুর রহমান, যুক্তরাষ্ট্র সফররত সিলেট সিটি কর্পোরেশনের জনপ্রিয় কাউন্সিলর সাবেক ছাত্রলীগনেতা ইলিয়াছুর রহমান ইলিয়াছ এবং কাউন্সিলর, আওয়ামী লীগনেতা তৌফিক বক্স লিপন ও সদ্য যুক্তরাষ্ট্র আগত সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি এ্যাডভোকেট রুহুল আহমদকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

অনুষ্ঠানের আকর্ষনীয় বিষয় ছিলো বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’র অন্যতম পরিচালক, সাংস্কৃতিক সংগঠক ছরওয়ার হোসেনের পরিকল্পনায় নির্মিত সিলেটের বিয়ানীবাজার জনপদের ইতিহাস- ঐতিহ্যের আলোকচিত্র প্রদর্শনী যা সংক্ষিপ্ত পরিসরে শৈল্পিকভাবে উপস্থাপন করা হয়েছিলো। প্রর্শনীতে খুব বেশী আলোকচিত্র স্থান পায়নি আয়োজকদের প্রস্তুতির অভাবে, কিন্তু, বিশটি আলোকচিত্রের সমাহার বিষয়সংশ্লিষ্ট আক্ষরিক উপস্থাপনে বিশালতা অর্জন করে।

অনুষ্ঠান শুরুর পূর্বে ছরওয়ার হোসেন কর্তৃক আগত অতিথিদের সম্মূখে আলোকচিত্রের শৈল্পীক উপস্থাপন উপস্থিতিদের কাছে বিয়ানীবাজারের ইতিহাস, ঐতিহ্য, রাজনৈতিক, সমাজিক অধিকার সচেতনা, বাংলাদেশের অভ্যূদয়ের লক্ষে আন্দোলন সংগ্রামে অবদান ও মহান মুক্তিযুদ্ধে তাদের ত্যাগ-তিতিক্ষার ক্ষেত্রগুলোকে ঊদ্ভাসিত করে তুলে। একই সাথে শিল্প, সাহিত্য, সাংবাদিকতা ও সাংস্কৃতিক জাগরণে বিয়ানীবাজারের মানুষের জাগরণ ও নানামূখি কর্মযজ্ঞ দিবালোকের মতো প্রষ্ফুটিত হয়ে উঠে। সম্যক তথ্যের বর্ণনাবহুল ও ক্রমান্বয়ে প্রদর্শিত আলোকচিত্রের মধ্যে ছিলো বিয়ানীবাজারের মানচিত্র, মহান মুক্তিযুদ্ধে পাক বাহিনীর নির্মমতার স্বাক্ষী শহীদ টিলা, বিয়ানীবাজার কলেজ এন্ড ইউনিভার্সিটি, নানাকার স্মৃতি সৌধ, শহীদ বুদ্ধিজীবি দার্শনিক অধ্যাপক ডঃ জি সি দেব, গণ প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের প্রথম শহীদ মনু মিয়া, রাজনীতিক সাহিত্যিক আকাদ্দস সিরাজুল ইসলাম, সাংবাদিক আং বাছিত, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী কবি তমিজ উদ্দিন লোদী, কবি ফজলুল হক, স্থপতি ও সাহিত্যিক শাকুর মজিদ, সাহিত্যিক সাংবাদিক মোস্তাফিজ শফি, যুক্তরাজ্য প্রবাসী সাহিত্যিক সাংবাদিক ফারুক যোশী, সাংবাদিক, লেখক ও নাট্যকার আজিজুল পারভেজ, শহীদ হুমায়ুন কবির চৌধুরী নাহিদ, সাংস্কৃতিক সংগঠন বিয়ানীবাজার সাংস্কৃতিক কমান্ড, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের উপর সম্পাদিত প্রামান্য ইতিহাসগ্রন্থ ‘ছাত্রলীগের ইতিহাস বাঙালির ইতিহাস’ ও বিয়ানীবাজারের প্রথম সাপ্তাহিক বিয়ানীবাজার বার্তা ও বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’র সম্পাদক ছাদেক আহমদ আজাদ।

বাংলাদেশের স্থানীয় এলাকাভিত্তিক এ ধরণের প্রদর্শনী যুক্তরাষ্ট্রে বিরল। যা অনুষ্ঠানে বিশেষত্ব আনয়ন করে। ভবিষ্যতে এ ধরণের বিষয় সংশ্লিষ্ঠ প্রদর্শনীর আয়োজন করতে সকলেই আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানের সভাপতি বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক রানা ফেরদৌস চৌধুরী তার বক্তব্যে প্রবাসে সংবাদ পোর্টালের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে এ ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন বিরল ঘটনা বলে উল্লেখ করেন এবং বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’র উত্তোরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করেন। তিনি বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে থাকা বাংলাদেশী প্রবাসীদের দুঃখ-সুখের সাথে আরো নিবিড় সম্পর্ক স্থাপনে বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’কে অগ্রণী ভূমিকা নিতে আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠান শেষে বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’র দু’বছর পূর্তি উপলক্ষে প্রথাসিদ্ধ কেক কর্তন করা হয়। যা সকলেই উপভোগ করেন।

অনুষ্ঠানের সমাপ্তিতে রাতের ডিনার পরবর্তীতে কতক্ষন চলে ফটোসেশন। হলজুড়ে নামে আনন্দের ফুয়ারা। হাসি আনন্দের সাথে রাতের গভীরতা বাড়ে। হলরুমে নেমে আসে শূন্যতা। কানের মাঝে বাজতে লাগলো রবীন্দ্রনাথের বিখ্যাত সুর “ যখন ভাঙলো, ভাঙলো মিলনও মেলা ভাঙলো”। হ্যাঁ, ভাঙলো অনুষ্ঠানের আনন্দ মেলা। কিন্তু, বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম’কে যেতে হবে বহুদুর। যাত্রাপথে থাকবে কাঁটা। থাকবে সংগ্রাম ও বিজয়। নব দিগন্তের যাত্রাপথে ধাবমান দিনগুলো হোক আনন্দ ও অর্জনে ভরপুর। এ প্রত্যাশা রইলো।

লেখক: পরিচালক, বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম।

 

Developed by :